নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র রওযা মুবারক সরিয়ে নেয়ার সউদী ওহাবী তথা ইহুদীদের ধৃষ্টতাপূর্ণ ষড়যন্ত্রের চরম প্রতিবাদ ও সারাবিশ্বের মুসলমানদের প্রতি ব্যাপক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান


মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, সমস্ত নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদের নবী, সমস্ত রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের রসূল, মুসলমান উনাদের ঈমানের মূল, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র রওযা শরীফ পবিত্র মসজিদে নববী শরীফ হতে সরিয়ে ফেলার

রাজারবাগ দরবার শরীফে পৃথিবীর ইতিহাসে এই প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে সারা বছর তথা আজীবনব্যাপী সম্মানিত সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার সম্মানিত মাহফিল মুবারক উনার ইন্তিযাম। সুবহানাল্লাহ!


মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুল খুলাফা মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ আলাইহিছ ছলাতু ওয়াস সালাম উনার সর্বকালের, সর্বযুগের, সর্বশ্রেষ্ঠ, অভূতপূর্ব, বেমেছাল, সুমহান তাজদীদ মুবারক ‘হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা ২৪ ঘণ্টা তথা দায়িমীভাবে সারা জীবন সম্মানিত সাইয়্যিদুল

‘সংখ্যালঘু নির্যাতন’ বলে হিন্দুদের যতো রটনা সব মিথ্যা ও তাদের পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র


সত্য কখনো চাপা থাকে না। মুসলমানদের চির শত্রু হিন্দুরা এদেশে অতিরিক্ত সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার জন্য নানা ধরনের চক্রান্ত করে নাটক সাজিয়ে বিভিন্ন ঘটনা ঘটায়। এমনই একটি বহুল প্রচারিত ঘটনা ছিলো সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার হিন্দু কিশোরী পূর্ণিমা সম্ভ্রমহরণের ঘটনা। ২০০১ সালের ঐ ঘটনাটি নিয়ে

গণতান্ত্রিক শাসকদের ষড়যন্ত্রেই বাংলাদেশের ‘সোনালী আঁশ’ পাট শিল্পে ধস নেমেছে


পাট বাংলাদেশের সোনালী আঁশ। সেই সোনালী আঁশ কি এখনো সেই ঐতিহ্যে বহাল আছে? নেই। এই পাট ও পাট শিল্প রপ্তানি করে আমাদের দেশে একসময় যে পরিমাণ বৈদেশিক মূদ্রা অর্জন হতো তা অব্যাহত থাকলে এতোদিনে হয়তো আমরা এশিয়ার সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক শক্তিশালী

মুরতাদ লতিফ কাজ্জাবীর পক্ষে মালউন প্রমোদ মানকিনের দালালি


সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মালউন প্রমোদ মানকি বলেছে, ‘বয়স-প্রতিবন্ধীত্বের কারণে হয়তো অমন কথা বলেছে লতিফ।’ প্রতিবন্ধীদের এক অনুষ্ঠানে গিয়ে সে বলেছে, ‘প্রতিবন্ধীদের সামাজিক, রাষ্ট্রীয় ও পারিবারিক কাজে অন্তর্ভুক্ত করে সোনার বাংলা গঠন করতে হবে।’ সে আরো বলেছে, ‘সুযোগ দিলে গোবরেও পদ্মফুল ফোটে। যেমন

নামাজে পায়ের সাথে পা মিলিয়ে দাঁড়ানো একটি বেদাত।


বিসমিল্লাহির রহমানির রহীম। সকল প্রশংসা আল্লাহর। অসংখ্য দরুদ ও সালাম নাযিল হোক প্রিয় নবীজীর উপর। নামাযে পায়ের সাথে পা মিলাতে আল্লাহর নবী সল্লাল্লহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিজে কোনদিন বলেননি। বুখারীর যে হাদীসে পায়ের সাথে পা মিলানোর কথা আছে, সেটা হলো একজন

ঈসায়ী মুসলিম (একটি ফিতনা) থেকে সাবধান মুসলমান! ০১


বাংলাদেশে হিন্দুয়ানী ফিতনার সাথে সাথে একটি ফিতনা মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে। আর এই ফিতনার নাম হল “ঈসায়ী মুসলিম” বা ইংরেজিতে “Je suis Muslim” নামে পরিচিত। বেশ কয়েক বছর আগে একটি পত্রিকা বিক্রয় কেন্দ্রের এক বিক্রেতা আমাকে জানালো তাদের কাছে কিছু শাদা

চতুর্থ খলীফা সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার বিশেষ খুছুছিয়াত তথা বৈশিষ্ট্য এবং গুণাবলী মুবারক


শেরে খোদা, ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার খুছুছিয়াত ও গুণাবলী মুবারক বহুবিধ। প্রথমত তিনি হচ্ছেন সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার

আজ পবিত্র ২৫শে যিলহজ্জ শরীফ


আজ আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল মুসলিমীন, ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদুনা হযরত আলী কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার সম্মানিত খিলাফত মুবারক গ্রহণ দিবস।

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র জীবনী মুবারক (২৭৯)


নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি জাহিলিয়াতের সমস্ত প্রকার মূর্খতা, অশালীন ও মন্দতা থেকে সম্পূর্ণরূপে পুতঃপবিত্র ও মাহফুয ছিলেন।   যেমন বিখ্যাত মুফাসসীর আল্লামা ইবনে কাছীর রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার ‘তাফসীরে ইবনে কাসীরের’ ৮ম খন্ড ৩, ৪ পৃষ্ঠায়

আশ শাহীদু, আল জাওওয়াদু, যুল হিজরাতাইন, মাহবুবুল্লাহি হযরত উছমান যুন নূরাইন আলাইহিস সালাম উনার দানের কারণে মহান আল্লাহ পাক তিনি বেহেশতে মেহমানদারীর আয়োজন করেন। সুবহানাল্লাহ!


বর্ণিত রয়েছে যে, খলীফাতু রসূলিল্লাহ সাইয়্যিদুনা হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম উনার খিলাফতকালে একবার পবিত্র মদীনা শরীফ উনার মধ্যে দুর্ভিক্ষ দেখা দিলো। বাইতুল মালেও উল্লেখযোগ্য পরিমাণ খাদ্য ছিলো না। ঠিক সেই মুহূর্তে আমীরুল মু’মিনীন সাইয়্যিদুনা হযরত যুন নূরাইন আলাইহিস সালাম উনার

মোদির শিক্ষানীতি হিন্দুত্বের প্রিজম!


ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শিক্ষানীতিকে হিন্দুত্বের প্রিজম বলে আখ্যায়িত করলো মার্কিন সংবাদ মাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমস। গত ইয়াওমুল খামিস (বৃহস্পতিবার) ‘ফলস টিচিং ফর ইন্ডিয়াস স্টুডেন্ট’ শিরোনামে একটি সম্পাদকীয় প্রকাশ করে পত্রিকাটি। ওই সম্পাদকীয়তে বলা হয়, শিক্ষাব্যবস্থার উন্নতির নামে নরেন্দ্র মোদি ভারতের ইতিহাসকে

‘আমেরিকাকে প্রধান শত্রু মনে করে রাশিয়ার ৭৩ ভাগ মানুষ!’


রাশিয়ার ৭৩ শতাংশ মানুষ আমেরিকাকে তাদের প্রধান শত্রু বলে মনে করে। অন্যদিকে দেশটির অর্ধেকের বেশি মানুষ চীনকে রাশিয়ার প্রধান বন্ধু হিসেবে ভাবছে। সাম্প্রতিক এক মতামত জরিপে এ সব তথ্য উঠে এসেছে। এ জরিপ চালিয়েছে রাশিয়ার প্রভাবশালী সংস্থা ভিটিএসআইওএম সেন্টার। এ জরিপে

আমেরিকার অর্থনীতিতে পতন!


পতন ঘটল আমেরিকার অর্থনীতির। বিশ্বের এক নম্বর অর্থনীতির পদটি হারালো দেশটি। যুক্তরাষ্ট্রকে টপকে বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতির স্থানটি দখল করে নিয়েছে চীন। এর ফলে প্রায় দেড়শ বছর পর মার্কিন অর্থনীতি নেমে এল দ্বিতীয় অবস্থানে। ১৮৭২ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রই ছিলো বিশ্বসেরা অর্থনীতি। কিন্তু