বোর্ড বইগুলোতে হযরত খুলাফায়ে রাশেদীন আলাইহিমুস সালাম উনাদের খিলাফত গ্রহণের বিষয়ে ভূল শিক্ষা দেয়া হচ্ছে!


সপ্তম শ্রেণীর ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা বইতে লেখা “মুসলমানদের মতামতের ভিত্তিতে হযরত আলি (রা) মুসলিম জাহানের চতুর্থ খলিফা নির্বাচিত হন।“ ষষ্ঠ শ্রেনীর বইতে লেখা, “হযরত ওমর (রা) ও অন্যান্য সাহাবীগণ হযরত আবু বকর (রা) কে খলিফা নির্বাচনের ব্যাপারে পরামর্শ করে তাঁকে 

২৭ই যিলহজ্জ শরীফ: সাইয়্যিদুনা হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার সুমহান শাহাদতী শান মুবারক প্রকাশ দিবস


কিয়ামতের দিন ডাকা হবে, কোথায় হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম! তারপর হযরত ফারূক্বে আ’যম আলাইহিস সালাম উনাকে মহান আল্লাহ্‌ পাক উনার সামনে উপস্থিত করা হবে। বলা হবে, ইয়া হযরত আবু হাফস আলাইহিস সালাম আপনার জন্য মারহাবা! এটা হচ্ছে আপনার আমলনামা। ইচ্ছা 

হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার কাছে কোন কিছুই গোপন নেই


তাবুকের যুদ্ধে হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার উষ্ট্রী হারিয়ে গিয়েছিল। এক মুনাফিক এক সাহাবীকে বললো, তোমাদের মুহাম্মদ তো নবী দাবী করে এবং তোমাদেরকে আসমানের কথা শুনায়। অথচ উনার উষ্ট্রীর হদিস উনার কাছে নেই। হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম 

ইমামুল আউওয়াল সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি অনন্য খুছুছিয়ত মুবারক আর বাবুল ইলমী শানে মহীয়ান


প্রবাদ আছে, ‘হার গুলেরা রঙ্গো বুয়ে দিগারাস্ত’। অর্থাৎ ‘একেক ফুলের একেক রকম রং ও ঘ্রাণ’। সমস্ত উম্মতের মাঝে হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের শ্রেষ্ঠত্ব। আবার উনাদের মাঝে বদরী ছাহাবীগণ উনাদের রয়েছে বিশেষ ফযীলত। আবার মুহাজিরগণ উনাদের রয়েছে ব্যতিক্রম শান 

ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি হলেন সর্বসম্মতিক্রমে


পবিত্র ‘তাফসীরে তাবারী শরীফ’ উনার মধ্যে উল্লেখ আছে, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নুবুওওয়াত প্রকাশের দশ বছর পূর্বে ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি পবিত্র 

আমীরুল মু’মিনীন খলীফাতুল মুসলিমীন ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ছিলেন এক বেমেছাল উজ্জ্বল


সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “আমার হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা প্রত্যেকেই হলেন আকাশের তারকা সদৃশ। উনাদের যে কাউকে যেকোনো বিষয়ে যেকোনো ব্যক্তি অনুসরণ করবে সেই হিদায়েত 

আসাদুল্লাহিল গালিব ইমামুল আউওয়াল সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার সংক্ষিপ্ত পরিচিতি মুবারক


আমীরুল মু’মিনীন সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি পবিত্র হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের অন্যতম। কুরাইশ বংশের হাশেমী শাখায় উনার পবিত্র বিলাদতী শান মুবারক প্রকাশ ঘটে। পিতৃকুল ও মাতৃকুল উভয় দিক থেকে তিনি কুরাইশ বংশোদ্ভূত। সবচেয়ে বিশুদ্ধ ও 

ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বাবুল ইলিম ওয়াল হিকাম সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস


নাম মুবারক হযরত আলী আলাইহিস সালাম। উপনাম আবূল হাসান ও আবূ তুরাব। পিতার নাম আবূ তালিব। মাতার নাম ফাতিমা বিনতে আসাদ। বিশেষ উপাধি আসাদুল্লাহ, হায়দার, মুরতাজা। তিনি আব্দুল্লাহ নামে প্রসিদ্ধ। তিনি নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার 

সাইয়্যিদুনা ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ছিলেন নবী খান্দানের অন্যতম সদস্য


মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার পবিত্র কালাম পাক উনার মধ্যে উনার রসূল, সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার হযরত আহলে বাইত আলাইহিমুস সালাম উনাদের পরিচয় ও ছানা-ছিফত মুবারক বর্ণনার পাশাপাশি উনাদের 

মুজাদ্দিদে আ’যম নূরে মুকাররম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার সম্মানিত মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি যাদের জানাযা


একাদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ আফদ্বালুল আউলিয়া, ক্বইয়ূমে আউওয়াল হযরত মুজাদ্দিদে আলফে ছানী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার সীরতগ্রন্থে উল্লেখ রয়েছে, তিনি যাদের জানাযা নামাযের ইমামতি করবেন উনাদের সকলের জন্য জান্নাত ওয়াজিব। সুবহানাল্লাহ! বলার অপেক্ষা রাখে না, তিনি যাদের জানাযা নামাযের ইমামতি করেছেন উনারা 

ইমামুল আউওয়াল মিন আহলি বাইতি রসূলিল্লাহি ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে মুহব্বত করা পবিত্র জান্নাত লাভের কারণ


সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি বর্ণনা করেন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি একদা সাইয়্যিদু শাবাবি আহলিল জান্নাহ সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুছ ছানী আলাইহিস সালাম এবং সাইয়্যিদু শাবাবি আহলিল জান্নাহ হযরত ইমামুছ ছালিছ আলাইহিস সালাম উনাদের 

ইমামুল আউওয়াল, আমীরুল মু’মিনীন সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনার সংক্ষিপ্ত সাওয়ানেহ উমরী মুবারক


হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মর্যাদা সম্পর্কে পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “(হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি জানিয়ে দিন, আমি তোমাদের নিকট কোনো বিনিময় চাচ্ছি না। আর চাওয়াটাও স্বাভাবিক