নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র রওযা মুবারক সরিয়ে নেয়ার সউদী ওহাবী তথা ইহুদীদের ধৃষ্টতাপূর্ণ ষড়যন্ত্রের চরম প্রতিবাদ ও সারাবিশ্বের মুসলমানদের প্রতি ব্যাপক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান


মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, সমস্ত নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদের নবী, সমস্ত রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের রসূল, মুসলমান উনাদের ঈমানের মূল, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পবিত্র রওযা শরীফ পবিত্র মসজিদে নববী শরীফ হতে সরিয়ে ফেলার

রাজারবাগ দরবার শরীফে পৃথিবীর ইতিহাসে এই প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে সারা বছর তথা আজীবনব্যাপী সম্মানিত সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ উনার সম্মানিত মাহফিল মুবারক উনার ইন্তিযাম। সুবহানাল্লাহ!


মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুল খুলাফা মামদূহ মুর্শিদ ক্বিবলা সাইয়্যিদুনা ইমাম খলীফাতুল্লাহ হযরত আস সাফফাহ আলাইহিছ ছলাতু ওয়াস সালাম উনার সর্বকালের, সর্বযুগের, সর্বশ্রেষ্ঠ, অভূতপূর্ব, বেমেছাল, সুমহান তাজদীদ মুবারক ‘হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনারা ২৪ ঘণ্টা তথা দায়িমীভাবে সারা জীবন সম্মানিত সাইয়্যিদুল

ভ্রান্ত ওহাবী (সালাফী-লা’মাযহাবী-তথাকথিত আহলে হাদীছ) মতবাদ প্রচারের নেপথ্যে–—– পর্ব-৪


(শয়তান যে মানুষকে নেক সুরতে ধোঁকা দেয়, এ বিষয়টি ভালভাবে অনুধাবন করেছিল শয়তানের অনুচর ইহুদী এবং খ্রিস্টানরা। মুসলমানদের সোনালী যুগ এসেছিল শুধু ইসলামের পরিপূর্ণ অনুসরণের ফলে শয়তানের চর ইহুদী খ্রিস্টানরা বুঝতে পেরেছিল মুসলমানদের মধ্যে বিভেদ, অনৈক্য, সংঘাত সৃষ্টি করতে পারলেই ইসলামের

প্রতি বৎসর পবিত্র কুরবানী আসলেই সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার বিদ্বেষী মালউন হিন্দু, ইহুদী ও নাস্তিক এবং তাদের ভাবাপন্ন এবং তাদের তোষণকারী এদেশীয় ভারতীয় ও বিজাতীয় দালালরা ষড়যন্ত্রে মেতে উঠে।


গত বছর ষড়যন্ত্রমূলকভাবে সিটি কর্পোরেশনের নির্দিষ্ট স্থানে কুরবানী করার প্রস্তাব দিয়েছিল, কুরবানীর পশুর হাট বসাতে বিলম্ব করেছে, তথাকথিত অ্যানথ্রাক্সের মিথ্যা প্রচারণা চালিয়েছে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কুরবানীর দিনেও গরুর গোশত খাওয়ানো হয়নি। এবার আরো গভীর ষড়যন্ত্রের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। অ্যানথ্রাক্সের মিথ্যা

পার্বত্য চট্টগ্রামকে দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন করার চূড়ান্ত পর্যায়ের ষড়যন্ত্র চলছে॥


দ্রুত পদক্ষেপ না নিলে দেশ হারাবে চট্টগ্রাম, সরকার হারাবে ক্ষমতা পার্বত্য চট্টগ্রামকে বাংলাদেশ থেকে বিচ্ছিন্ন করে পৃথক খ্রিস্টান রাষ্ট্র করতে সিএইচটি কমিশন নামে একটি আন্তর্জাতিক কুচক্রী মহল সাম্রাজ্যবাদী আমেরিকাকে অবিরাম সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি উপজাতিদের নানা রকম সহায়তা দিয়ে ধর্মান্তরিত করে

ব্রিটিশ গুপ্তচরের স্বীকারোক্তি এবং ওহাবী (সালাফী-লা’মাযহাবী-তথাকথিত আহলে হাদীছ) মতবাদের নেপথ্যে ব্রিটিশ ভূমিকা — পর্ব- ৩


[শয়তান যে মানুষকে নেক সুরতে ধোঁকা দেয়, এ বিষয়টি ভালভাবে অনুধাবন করেছিল শয়তানের অনুচর ইহুদী এবং খ্রিস্টানরা | মুসলমানদের সোনালী যুগ এসেছিল শুধু ইসলামের পরিপূর্ণ অনুসরণের ফলে | শয়তানের চর ইহুদী খ্রিস্টানরা বুঝতে পেরেছিল মুসলমানদের মধ্যে বিভেদ, অনৈক্য, সংঘাত সৃষ্টি করতে

মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে মুসলিম বিরোধী দাঙ্গায় শহীদের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়ালো


মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে মুসলিম বিরোধী দাঙ্গায় শহীদের সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। ২০১৩ সালের ডিসেম্বর থেকে সেখানে নতুনকরে দাঙ্গা শুরু হয়েছে। মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে দাঙ্গাপীড়িত প্রায় ৫০টি সম্প্রদায়ের লোকদের মতামতের ভিত্তিতে এ পরিসংখ্যান প্রকাশ করা হয়েছে। গোলযোগপূর্ণ মধ্য আফ্রিকান অঞ্চলে জাতিসংঘের

ভ্রান্ত ওহাবী (সালাফী-লা’মাযহাবী-তথাকথিত আহলে হাদীছ) মতবাদ প্রচারের নেপথ্যে – পর্ব-২


(শয়তান যে মানুষকে নেক সুরতে ধোঁকা দেয়, এ বিষয়টি ভালভাবে অনুধাবন করেছিল শয়তানের অনুচর ইহুদী এবং খ্রিস্টানরা। মুসলমানদের সোনালী যুগ এসেছিল শুধু ইসলামের পরিপূর্ণ অনুসরণের ফলে শয়তানের চর ইহুদী খ্রিস্টানরা বুঝতে পেরেছিল মুসলমানদের মধ্যে বিভেদ, অনৈক্য, সংঘাত সৃষ্টি করতে পারলেই ইসলামের

ব্রিটিশ গুপ্তচরের স্বীকারোক্তি এবং ওহাবী (সালাফী-লা’মাযহাবী-তথাকথিত আহলে হাদীছ) মতবাদের নেপথ্যে ব্রিটিশ ভূমিকা —- পর্ব- ২


[শয়তান যে মানুষকে নেক সুরতে ধোঁকা দেয়, এ বিষয়টি ভালভাবে অনুধাবন করেছিল শয়তানের অনুচর ইহুদী এবং খ্রিস্টানরা | মুসলমানদের সোনালী যুগ এসেছিল শুধু ইসলামের পরিপূর্ণ অনুসরণের ফলে | শয়তানের চর ইহুদী খ্রিস্টানরা বুঝতে পেরেছিল মুসলমানদের মধ্যে বিভেদ, অনৈক্য, সংঘাত সৃষ্টি করতে

ধারণার চেয়েও অধিক সংকুচিত জাপানের অর্থনীতি


এপ্রিল-জুন সময়ে জাপানের অর্থনীতি ৭ দশমিক ১ শতাংশ সংকুচিত হয়েছে। এর আগে আগস্টে সংশোধিত উপাত্তে ৬ দশমিক ৮ শতাংশ এবং পূর্বাভাসে ৭ শতাংশ সংকোচনের কথা বলা হয়েছিল। খবর বিবিসি। অর্থনীতিবিদসহ বিশ্লেষকরা দ্বিতীয় প্রান্তিকে এই সংকোচনের পেছনে বিক্রয় কর বৃদ্ধিকে দায়ী করছে।

ওলীয়ে মাদারযাদ, আওলাদে রসূল, নকশায়ে হায়দার, শাফিউল উমাম, সাইয়্যিদুনা হযরত শাহদামাদ আউওয়াল ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি উনার অতুলনীয় শান-মান, মর্যাদা ও মাক্বাম উনাদের সমন্বয়ে মুবারক স্বভাব-সঞ্জাত আপন স্বকীয়তায় অনন্য বৈশিষ্ট্যমণ্ডিত


পুরনো প্রবাদে রয়েছে: “নদী মরে গেলেও, অর্থাৎ নদী শুকিয়ে গেলেও নদীর চিহ্ন থেকে যায়।” এটি শুধু প্রবাদ নয়, একান্ত সত্য কথা। অভিজাত, সম্ভ্রান্ত, আল্লাহওয়ালা, বিশেষ করে সম্মানিত সাইয়্যিদ বংশের নেক সন্তানের চাল-চলন, রীতিনীতি, আচার-আচরণ, বাক্যালাপ, ব্যবহার, ব্যক্তিত্ব, মাহাত্ম্য ইত্যাদি সবকিছুই স্বাতন্ত্র্য-

তিনি যমীনে রহমতস্বরূপ


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার রহমত মুহসিন বান্দা-বান্দী উনাদের নিকটে।” সুবহানাল্লাহ! পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে উল্লেখ রয়েছে, খালিক্ব মালিক রব মহান

সাইয়্যিদুনা হযরত শাহদামাদ আউওয়াল ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার শান মান মুবারক


খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক রব্বুল আলামীন উনার বেশুমার শুকরিয়া যিনি আমাকে আমাদেরকে ও বিশ্ববাসীকে এক মহান নিয়ামত মুবারক দান করেছেন। আলহামদুলিল্লাহি রব্বিল আলামীন। সেই নিয়ামত মুবারক কি? সেই মহান নিয়ামত মুবারক হচ্ছেন যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ আল মুজাদ্দিদুল আ’যম, ইমামুল

কায়িনাতের দিক দিগন্তে আলোর জ্যোতির উজ্জ্বলধারা বহিয়ে ধরায় শাফিউল উমাম সাইয়্যিদুনা হযরত শাহদামাদ আউওয়াল হুযূর ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার তাশরীফ


আরবী বাক্য ‘নূরুন আলা নূর’ উনার বাংলা মর্মার্থ ‘সোনায় সোহাগা’কে অতিক্রম করে ইংরেজি শব্দ Good, Better, Best -কে পশ্চাতে রেখে, বহুল প্রচলিত আরবী শব্দ জায়্যিদ, ত্বইয়িব, খইর, মুমতাজ, আফদ্বল, আহসান ইত্যাদির শিরে আরোহণ করে, দুলোকী নব নকশাখচিত পালকিতে চড়ে ধরার বুকে