‘অনুপ্রবেশকারী’ বাংলাদেশীদের মৃত্যুদণ্ড চায় হিন্দু পরিষদ


 

ভারতের হিন্দুদের আরো ‘সমৃদ্ধশালী, সুরক্ষিত এবং সম্মানিত’ করতে বাংলাদেশী ‘অনুপ্রবেশকারী’দের মৃত্যুদ- দেয়ার দাবি করেছে দেশটির হিন্দু সম্প্রদায়ের সংগঠন ‘বিশ্ব হিন্দু পরিষদ’ (ভিএইচপি)। গত ইয়াওমুল আরবিয়া (বুধবার) ভারতের কয়েকটি গণমাধ্যম এ তথ্য জানিয়েছে।
অবৈধ পথে ভারতে প্রবেশকারী বাংলাদেশীদের মৃত্যুদ-ের বিধান রেখে সে দেশের ‘বিদেশী নাগরিক আইন’ সংশোধনের প্রস্তাবও দিয়েছে ভিএইচপি। এক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের সভাপতি প্রবীণ তোগাদিয়া এই দাবি করে। ইতোমধ্যে যেসব বাংলাদেশী ভারতে অনুপ্রবেশ করেছে, তাদের ফেরত পাঠানোরও প্রস্তাব দেয় তোগাদিয়া।
প্রবীণ তোগাদিয়া বলেছে, অনুপ্রবেশকারী ঠেকাতে ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারকে অবশ্যই কঠোর আইন প্রণয়ন করতে হবে। বিশেষ করে বাংলাদেশী মুসলিমদেরকে তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে এটি দরকার। সে বলেছে, কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারকে যত দ্রুত সম্ভব এ বিষয়ে উদ্যোগ নিতে হবে। অথবা একটি উপযুক্ত আইন তৈরি করে অনুপ্রবেশকারীদের মৃত্যুদ- কার্যকর করতে হবে।
ত্রিপুরা রাজ্যে তিন দিনের সফরে থাকা হিন্দু পরিষদের এই নেতা দাবি করে বলেছে, ভারতে এই মুহূর্তে ১৫ লাখের বেশি অনুপ্রবেশকারী রয়েছে। এদের অধিকাংশই বাংলাদেশী, যারা পশ্চিমবঙ্গ, আসামসহ ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের জেলাগুলোতে বসবাস করছে। ফলে অন্যান্য রাজ্যের নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়েছে। সংবাদ সম্মেলনে তোগাদিয়া প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উদ্দেশে বলেন, খুব দ্রুত অবৈধ বাংলাদেশীদের ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করা উচিত। তবে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান থেকে কোনো হিন্দু ভারতে প্রবেশ করলে তাদের শরণার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে যত দ্রুত সম্ভব ভারতের নাগরিকত্ব দেয়ার প্রস্তাব করেছে সে।
সংবাদ সম্মেলনে তোগাদিয়া বলেছে, বিশ্ব হিন্দু পরিষদ ভারতকে একটি নিরাপদ, সমৃদ্ধ এবং সম্মানিত একটি রাষ্ট্র হিসেবে দেখতে চায়।

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে