অপরুপ সৌন্দর্য্যের দেশ বাংলাদেশ ( ছবি ব্লগ )- ১


প্রথম পর্বে থাকছে রাতারগুল বন নিয়ে 

রাতারগুল পানিবন বা Ratargul Swamp Forest বাংলাদেশের একমাত্র ্পানিবন বা সোয়াম্প ফরেস্ট এবং বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য। বনের আয়তন ৩,৩২৫.৬১ একর, আর এর মধ্যে ৫০৪ একর বনকে ১৯৭৩ সালে বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য হিসেবে ঘোষণা করা হয়। সিলেট জেলার গোয়াইনঘাটের ফতেহপুর ইউনিয়নে, গুয়াইন নদীর দক্ষিণে এই বনের অবস্থান। বনের দক্ষিণ দিকে আবার রয়েছে দুটি হাওর: শিমুল বিল হাওর ও নেওয়া বিল হাওর। সিলেট শহর থেকে এর দূরত্ব ২৬ কিলোমিটার। বিশাল এ বনে রয়েছে জারুল (Giant Crape-myrtle), করচ, কদম (Neolamarckia cadamba), বরুণ, পিটালি, হিজল (Barringtonia acutangula), অর্জুন, জালি বেত ও মুর্তা বেতসহ পানিসহিষ্ণু প্রায় ২৫ প্রজাতির উদ্ভিদ। পাখির মধ্যে রয়েছে সাদা বক (Haron), কানা বক (Paddybird), মাছরাঙা (kingfisher), টিয়া (Parrot), বুলবুলি (Red-vented Bulbul), পানকৌড়ি (Cormorant), ঢুপি (Spotted Dove), ঘুঘু (Dove), চিল (Kite), শঙ্খ চিল (Brahminy Kite) , বাজ (Mountain Hawk-Eagle), শকুন (Vulture), বালিহাঁস (Cotton Pygmy Goose) প্রভৃতি। সাপের মধ্যে রয়েছে অজগর (python), গোসাপ (Monitor Lizard), গোখরা (Cobra), শঙ্খচূড় (King Cobra), কেউটে (Monocled Cobra), জলধুড়াসহ বিষাক্ত অনেক প্রজাতি। বর্ষায় বনের ভেতর পানি ঢুকলে এসব সাপ গাছের ওপর ওঠে। বনেও দাবিয়ে বেড়ায় মেছোবাঘ (Fishing Cat), কাঠবিড়ালি (Squirrel), বানর (Monkey), ভোঁদড় (Otter), শিয়াল (Jackal) সহ নানা প্রজাতির বণ্যপ্রাণী। টেংরা , খলিশা, রিঠা, পাবদা, মায়া , আইড়, কালবাউস, রুইসহ আরও অনেক জাতের মাছ পাওয়া যায় এখানে।

 

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+