অভাব মানুষের নিজের তৈরি


মহান আল্লাহ পাক মানুষকে পরিমিত রিযিক দিয়ে থাকেন। মহান আল্লাহ পাক তিনি অভাব মুক্ত তাই তিনি বান্দাকেও অভাব মুক্ত রাখেন। কখনো কখনো রিযিকের সঙ্কীর্ণতা দ্বারা বান্দাকে পরীক্ষা করে থাকেন। সাধারণভাবে মহান আল্লাহ পাক তিনি বান্দাকে কখনোই রিযিকের অভাবে রাখেন না। বান্দা নির্ধারিত রিযিকের অপচয় বা বেহিসাবী খরচ করার কারণে অভাবগ্রস্ত হয়, এটা বান্দার নিজের কর্মের ফল। উদাহরণস্বরূপ কেউ মাসে ৫০০০ টাকায় জীবনযাপন করে থাকে আবার কেহ মাসে ৫ লাখ টাকাও খরচ করে থাকে। অভাব কাকে বলে? আয়ের চেয়ে বেশি ব্যয় করলে একজন মানুষ ঋণী হয়ে যায় অর্থাৎ অভাবী হয়। এই নীতিমালায় একজন গরিব আয়ের মধ্যে থেকে সচ্ছলতা পেতে পারে আবার একজন ধনী ব্যক্তি আয়ের চেয়ে বেশি ব্যয় করে অভাবী হতে পারে। তাহলে সচ্ছল বা অভাবী হওয়া নিজের কর্ম ফল। মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার সৃষ্টিকে অফুরন্ত নিয়ামত মুবারক দিয়ে থাকেন। মহান আল্লাহ পাক তিনি কাফির -মুশরিকেরও রিযিক কখনো বন্ধ করেন না। পরীক্ষার কারণ ছাড়া মহান আল্লাহ পাক তিনি বান্দাকে কখনোই অভাবগ্রস্ত করেন না। সুতরাং সর্বক্ষণ সর্বক্ষেত্রে মহান আল্লাহ পাক উনার শুকরিয়া ও কৃতজ্ঞতা স্বীকার করা বান্দার জন্য ফরয।

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে