অমঙ্গলযাত্রা নিয়ে জাহিল মূর্খদের মূর্খতাসূচক বক্তব্য


বৈশাখী পূজার একদিন আগে এক বক্তা বলেছে- কথিত অমঙ্গযাত্রা নাকি মুঘল আমল থেকেই হয়ে আসছে। আর মঙ্গল শব্দটার সাথে নাকি হিন্দুয়ানীর কোনো সম্পর্ক নেই। এমন খবর শুনে দেখে দেশের শিশু-কিশোর থেকে সব শ্রেণী পেশার মানুষ একপ্রকার হতবাক বললেও চলে। কারণ, যদিও বৈশাখী পূজার কাজকারবার মুঘলদের আমল থেকে শুরু হয়েছে। কিন্তু অমঙ্গলযাত্রা যে এদেশে ৯০-এর দশকে শুরু হয়েছে সেই কথাটি কি বক্তা জানে না? উল্লেখ্য, বক্তা যেদিন এমন বক্তব্য দিয়েছে সেদিনই পত্র-পত্রিকা অনলাইন মাধ্যমে উক্ত কুফরী-শেরকী আমল অমঙ্গলযাত্রার উদ্ভাবকরা জানিয়েছে যে, তারাই চারুকলা থেকে ৯০-এর দশক হতে এই অমঙ্গলযাত্রা শুরু করে। তাহলে এমন বক্তব্যের ভিত্তি কি? এছাড়া মঙ্গল হিন্দুয়ানী শব্দ না সেটা কে বলে? মঙ্গল শব্দটা হিন্দুরা তাদের পূজা-পার্বনের বিভিন্ন অনুষঙ্গ হিসেবেই ব্যবহার করে। তাদের হিন্দুয়ানী দেব-দেবী পূজার বই ঘাটলেই তো সেটার প্রমাণ পাওয়া যায়। তাহলে এমন বক্তব্য কি একজন জাহিলকেও হার মানায় না? এমন কাট্টা বেদ্বীনী বক্তব্য দিয়ে কি কেউ এদেশের মুসলমান উনাদের মাঝে বৈশাখী পূজার এসব শেরকী অনুষঙ্গ চাপিয়ে দিতে পারবে? কখনোই পারবে না, সবাইকে মনে রাখতে হবে, মুসলমানগণ ইসলামবিরোধী কোনো শেরকী আমল নিজেদের জীবনে প্রতিফলিত হতে বা বাস্তবায়ন করতে কখনোই দিবেন না

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে