অস্ত্রের পরিবর্তে ঢোল-তবলা, সশস্ত্রবাহিনীর এ কোন হাল!


প্রবাদ আছে, যার কাজ তাকেই সাজে। কামারের কাছে থাকবে লোহা-লক্কর, হাতুড়ি। মুচির কাছে সুই, সুতা, চামড়া। কসাইয়ের কাছে ছুরি, চাপাতি, ঘাটিয়া। কুলির কাছে টুকরি আর বিড়া। অঙ্কনকারীর কাছে রং, তুলি (ব্রাশ)। সর্বোপরি সশস্ত্র বাহিনীর নিকট থাকবে সর্বাধুনিক অস্ত্র, গোলা-বারুদ, ট্যাংক কামান আর অতন্দ্র রক্ষীর হাঁক-ডাক। আর এ ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম হওয়া বিপদ সঙ্কেত।

পাঠক! ডাক্তারের চেম্বারে যদি কসাই বসে, তাহলে রোগী হিসেবে আপনার অবস্থা কিরূপ হবে তা কি একটু ভেবেছেন? আপনার বাড়ির কেয়ারটেকার যদি ঢোল-তবলা নিয়ে বেড়ায়, তাহলে আপনার বাড়ির নিরাপত্তার বিষয়ে আপনি অবশ্যই আশঙ্কা প্রকাশ করবেন বা শঙ্কিত থাকবেন।

স্বাধীনতা দিবসে সশস্ত্র বাহিনী সামরিক কুচকাওয়াজ না দেখিয়ে অস্ত্র রেখে দিয়ে যখন ঢোল-তবলা নিয়ে নাচ-গানের আয়োজন করবে, তখন দেশের প্রতিরক্ষা ও স্বাধীনতা নিয়ে আপনি কি শঙ্কিত নন। সচেতন নাগরিক অবশ্যই আতঙ্কিত। কারণ অস্ত্রের পরিবর্তে ঢোল-তবলা! সশস্ত্র বাহিনী সত্যিই বেহাল!

Views All Time
2
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে