অহংকারের নিন্দা


 

জান্নাত ও জাহান্নামের মধ্যে একটি বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়েছিল। জাহান্নাম বললো, আল্লাহপাক তিনি আমাকে অহঙ্কারী ও দাম্ভিকদের ঠিকানা মনোনীত করেছেন। জান্নাত বললো, আমার গর্ব  এই যে, আল্লাপাক তিনি আমাকে দূর্বল, অক্ষম , অসহায় ও জিজ্ঞাসাকারীবিহীনদের আশ্রয় মনোনীত করেছেন।

জওয়াবে আল্লাহপাক  তিনি জান্নাতকে  বললেন , তুমি আমার রহমত, আমার যে বান্দার প্রতি আমার ইচ্ছা হয়, তোমার মাধ্যমেই আমরা করুনা প্রকাশ করবো । আর জাহান্নামকে বললেন, তুমি আমার আযাব; যাকে ইচ্ছা তোমার দ্বারাই আমি শাস্তি প্রদান করবো এবং তোমাদের প্রত্যেকেই পূর্ণ করে দেওয়া হবে।

 

হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন,

একদা এক ব্যক্তি একটি মূল্যবান চাদর পরিধান করে অহঙ্কার বশত বারবার ডান ও বাম কাধেঁর দিকে তাকাচ্ছিল। এটা দেখে আল্লাহপাক তিনি তাৎক্ষণাৎ তাকে মাটির নিচে ধসিয়ে দিলেন। রোয কিয়ামত পর্যন্ত সে যমীনের সর্বনিম্ন স্তরে পর্যন্ত চলে যেতে থাকবে।

নাউযুবিল্লাহ

হুযুরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনি আরো ইরশাদ মুবারক করেন,

যে ব্যাক্তি মনে মনে নিজেকে খুব বড় ভাবে, কথা-বার্তা ও চাল-চলনে গর্ব-অহঙ্কারের ভাব প্রকাশ করে, অতঃপর যখন সে আল্লাপাক উনার দরবারে উপস্থিত হবে আল্লাহপাক তার প্রতি অসন্তুষ্টির ভাব প্রকাশ করবেন।

নাউযুবিল্লাহ্

 

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে