অ্যামনেস্টি এবং হিউম্যান রাইটসকে হাছান মাহমুদ- যুদ্ধাপরাধের বিচার বন্ধের লবিস্ট হিসেবে কাজ করছে তারা


অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এবং হিউম্যান রাইটস ওয়াচের যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির রায় স্থগিতের দাবীর তীব্র সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেন, তাদের যুদ্ধাপরাধীদের সহযোগী বললে অত্যুক্তি হবে না। কেননা তারা যুদ্ধাপরাধের বিচার বন্ধের জন্য লবিস্ট হিসেবে কাজ করছে। আমাদের দেশে যা ঘুষ নামে পরিচিত উন্নত দেশগুলোতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তা লবিষ্টের ফি হিসেবে গ্রহণ করে থাকে।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, আমাদের দেশে যখন মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার হয় তখন তারা বিবৃতি দিয়ে প্রতিবাদ জানায়। আর তাদের দেশে যখন মানুষকে বিনাবিচারে হত্যা করা হয় তখন তারা সুবোধ বালকের মতো বসে থাকে।
ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি-জামাতের ভাষা আর অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ভাষার মধ্যে কোন পার্থক্য নেই।
ড. হাছান মাহমুদ গতকাল রাজধানীর ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটি মিলনায়তনে আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগ ঢাকা মহানগর উত্তরের উদ্যোগে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
হাছান মাহমুদ এমপি বেগম জিয়াকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘ এত দিন যে রাজনীতি করেছেন তা পরিহার করে নতুন ধরনের রাজনীতি করুন। সন্ত্রাসবাদী রাজনীতি না করে অতীত ভুলের জন্য জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়ে দেশের মানুষের মন জয়ের রাজনীতি করুন।’
আওয়ামী লীগের এ নেতা আরো বলেন, ‘নতুন রাজনীতি না করলে দেশের মানুষ শুধু আপনাকে দু’বছরের জন্য নয়, চিরদিনের জন্য নির্বাসনে পাঠাবে।’
পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি বেগম খালেদা জিয়ার নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছে। কিন্তু বাস্তবতা হলো বেগম খালেদা জিয়ার দেশে ফেরায় দেশের মানুষ তাদের নিরাপত্তার বিষয়ে উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে।
এ বিষয়ে তিনি বলেন, বেগম জিয়া নির্বাচন বানচালের নামে এবং ৫ জানুয়ারি থেকে দীর্ঘ তিন মাস হরতাল ও অবরোধের নামে যেভাবে দেশের নিরীহ মানুষকে হত্যা করেছেন তাতে দেশের মানুষের নিরাপত্তা নিয়ে শংকিত হওয়াটাই স্বাভাবিক।
তিনি বলেন, বিএনপি নেত্রী লন্ডনে দীর্ঘদিন অবস্থান শেষে দেশে ফিরে আসছেন। তিনি সেখানে অবস্থানকালে তার পুত্র তারেক রহমানের সাথে নানা শলাপরামর্শ করেছেন। আর তারেক রহমানের সাথে বিশ্বের বড় বড় সন্ত্রাসীদের যোগাযোগ রয়েছে বলে জানা গেছে। আর সেজন্যও দেশের মানুষ তাদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে রয়েছে।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+