সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দু:খিত। ব্লগের উন্নয়নের কাজ চলছে। অতিশীঘ্রই আমরা নতুনভাবে ব্লগকে উপস্থাপন করবো। ইনশাআল্লাহ।

আইএসকে অস্ত্র সরবরাহ করে যুক্তরাষ্ট্র: সউদী আরব


সিরিয়া ও ইরাক-ভিত্তিক সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ‘আইএস’ যে অস্ত্রে যুদ্ধ করছে, তার প্রায় এক তৃতীয়াংশই যুক্তরাষ্ট্র ও সউদী আরবের। সিরিয়া-ইরাকের যুদ্ধক্ষেত্রে রিয়াদ-ওয়াশিংটন তাদের মদদপুষ্ট পক্ষকে এই অস্ত্র সরবরাহ করে। এভাবে হাত বদল হয়ে তা পৌঁছানো হয় সন্ত্রাসী গোষ্ঠীটির হাতে।
জরিপ চালিয়ে এ তথ্যই দিয়েছে সমরাস্ত্র পর্যবেক্ষক সংস্থা কনফ্লিক্ট আর্মানেন্ট রিসার্চ (সিএআর)। গত বৃহস্পতিবার ২০০ পাতার এক প্রতিবেদনে জরিপের বিস্তারিত তুলে ধরে সিএআর।  জরিপের প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র ও সউদী আরবের সরবরাহকৃত অস্ত্র আইএসের হাতে গিয়ে গোষ্ঠীটির সমরাস্ত্রের ‘শক্তি ও মান’কে আরও পোক্ত করেছে, যেটা এই যুদ্ধক্ষেত্রে তাৎপর্যপূর্ণ প্রভাব রেখেছে।
ইরাক ও সিরিয়ায় আইএসের হাতে থাকা অস্ত্র ও এসবের উৎস সম্পর্কে তিন বছর ধরে মাঠ পর্যায়ে অনুসন্ধান চালিয়ে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইমপ্রোভাইসড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) বানানো যায়- এমন সরঞ্জামসহ যুদ্ধক্ষেত্রে ৪০ হাজার অস্ত্র পাওয়া গেছে।
সিএআর’র প্রতিবেদন মতে, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই বাহিনীগুলো সউদী আরব ও যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্রে লড়াই করছে।
সিএআর তাদের প্রতিবেদনে জানায়, যেসব অস্ত্র আইএস এখন ব্যবহার করছে তারবেশিরভাগই যুক্তরাষ্ট্র ও সউদীর। এই অস্ত্র ব্যবহার হচ্ছে আইএসবিরোধী সুন্নীপন্থী মুসলিম শক্তিগুলোর বিরুদ্ধে।
চলতি সপ্তাহের শুরুতে ইরাকি সরকার আইএসের কবল থেকে তাদের সবশেষ শহর রাওয়া উদ্ধারের পর গোষ্ঠীটির বিরুদ্ধে যুদ্ধের সমাপ্তি ঘোষণা করে। এই সপ্তাহেই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সিরিয়ায় তাদের একটি ঘাঁটি পরিদর্শনের পর সৈন্য প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়। সিরিয়ার যুদ্ধক্ষেত্রে রাশিয়া আইএস-বিরোধী লড়াইয়ে নামার কথা বললেও বিশ্লেষকরা মনে করেন, বাশার আল-আসাদকে রক্ষায়ই এতোদিন এখানে মাথা ঘামিয়েছে মস্কো
Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে