আক্বীক্বা


প্রশ্নঃ- আক্বীক্বা সম্পর্কে জানতে চাই ।

উত্তরঃ- শিশু সন্তান জন্মগ্রহণ করার পর সে উপলক্ষে কোন পশু জবাই করাকে আক্বীক্বা বলা হয়।

সম্মানিত হানাফী মাযহাব মতে সন্তান জন্মগ্রহণের সপ্তম দিনে আক্বীক্বা করা সুন্নত। তবে সেদিন আক্বীক্বা করতে না পারলে ১৪তম দিনে করবে। যদি তাও সম্ভব না হয় তাহলে ২১তম দিনে আক্বীক্বা করবে। যদি তাও না পারে তাহলে জীবনের যেকোন দিন দিলেও আদায় হবে।

ছেলে সন্তানের জন্য দুটি খাসি। আর মেয়ে সন্তানের ক্ষেত্রে একটি খাসি আক্বীক্বা করতে হবে। যদি গরু বা মহিষ দ্বারা আক্বীক্বা দিতে চায় তাও পারবে। সেক্ষেত্রে ছেলের জন্য দুই নাম তথা সাত ভাগের দুই ভাগ।
আর মেয়ে সন্তানের ক্ষেত্রে এক নাম তথা সাত ভাগের এক ভাগ দিতে হবে। ছেলে সন্তানের জন্য দুটি খাসি কিংবা গরুতে দুই নাম দিতে না পারলে একটি খাসি কিংবা এক নামে আক্বীক্বা দিলেও চলবে। তাছাড়া একসাথে বা একবারে দুটি খাসি বা দুই নামে আক্বীক্বা দিতে না পারলে দুই ভাগে কিংবা দুই বারে তথা সপ্তম দিনে একটি পরে সুবিধাজনক সময়ে অন্যটি দেয়াও যাবে।

তবে যথাসম্ভব আক্বীক্বা তাড়াতাড়ি দেয়া উচিত। বিলম্ব করা উচিত নয়। কেননা সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “শিশু সন্তান আক্বীক্বার সাথে বন্ধক বা আবদ্ধ থাকে। কাজেই, সপ্তম দিনে তার পক্ষ হতে পশু যবেহ করবে, তার নাম রাখবে এবং তার মাথা মু-ন করবে।”

(আহমদ শরীফ, তিরমিযী শরীফ, আবু দাউদ শরীফ, নাসায়ী শরীফ)

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে