আজ পবিত্র ১লা জিলহজ্ব শরীফ। এ মুবারক মাসের প্রথম ১০ দিনের ফযীলত জানা আছে কি?


১) প্রথম দশদিন দিনে রোযা রাখা এবং রাতে বেশী বেশী তওবা – ইস্তেগফার, কুরআন শরীফ তেলওয়াত, নফল নামায, তাহাজ্জুদ নামাজ , যিকির করা।

১০ দিন ঈদের দিন। কুরবানীর গোস্তদিয়ে রোযা ভঙ্গ করা।

عن أبي هريرة عن النبي صلى الله عليه و سلم : قال ما من أيام أحب إلى الله أن يتعبد له فيها من عشر ذي الحجة يعدل صيام كل يوم منها بصيام سنة وقيام كل ليلة منها بقيام ليلة القدر
হযরত আবু হুরায়রা রাদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু.থেকে বর্ণিত নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ মুবারক করেন,

জিলহজ্বের দশ দিনের ইবাদত আল্লাহর নিকট অন্য দিনের ইবাদত তুলনায় বেশী প্রিয়,

প্রত্যেক দিনের রোযা এক বছরের রোযার ন্যায়

আর

প্রত্যেক রাতের ইবাদত লাইলাতুল কদরের ইবাদতের ন্যায় ।

{তিরমিজী শরীফ,হাদীস নং-৭৫৮, সুনানে বায়হাকী কুবরা, হাদীস নং-৩৭৫৭, কানযুল উম্মাল ফি সুনানিল আকওয়াল ওয়াল আফআল, হাদীস নং-১২০৮৮}

عن ابن عباس عن النبي صلى الله عليه و سلم أنه قال ما العمل في أيام العشر أفضل من العمل في هذه

হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু থেকে বর্ণিত। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ, হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ মুবারক করেছেন-এই দশ দিনের আমল অপেক্ষা অন্য দিনের আমল প্রিয় নয়। {বুখারী শরীফ,হাদীস নং-৯২৬}

২) পবিত্র জিলহজ্জ শরীফ উনার চাঁদ দেখা যাওয়ার পর থেকে কুরবানী করা পূর্ব পর্যন্ত নখ, চুল বা কোন পশম না কাটা।

عن أم سلمة أن النبي صلى الله عليه وسلم قال اذا دخلت العشر فأراد أحدكم أن يضحي فلا يمس من شعره ولا من بشره شيئا
উম্মুল মুমিনীন হযরত উম্মে সালমা আলাইহাস সালাম বর্ননা মুবারক করেন। নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূরপাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ মুবারক করেছেন যে, যখন (পবিত্র জিলহজ্জ শরীফ উনার) ১০ দিনের সূচনা হয়, আর তোমাদের কেউ কুরবানী করার ইচ্ছে করে, সে যেন চুল-নখ ইত্যাদি না কাটে।

৩)তাকবীরে তাশরীক বলা।

জিলহজ্ব মাসের ৯ তারিখের ফজর থেকে তের তারিখের আসর পর্যন্ত প্রত্যেক ফরজ নামাযের পর একবার তাকবীর বলা ওয়াজিব। পুরুষের জন্য আওয়াজ করে,আর মহিলাদের জন্য নীরবে।

الله اكبر الله اكبر لا اله الا الله الله اكبر و الله اكبرولله الحمد

তাকবীর হল-আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার, লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার ওয়ালিল্লাহিল হামদ।
Lik

Views All Time
1
Views Today
4
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+