আধুনিকায়নের নামে আমরা গিনিপিগ হতে চাই না


পারমাণবিক শক্তিধর একমাত্র মুসলিম দেশ পাকিস্তান। শান্তি-শৃংখলার সাথেই পাকিস্তানবাসী দিনাতিপাত করছিলো। কিন্তু তথাকথিত আধুনিকায়ন তাদের ইতমিনান কেড়ে নিলো। ডিজিটালাইজড করতে দেশব্যাপী ছবি সংগ্রহ করা হয়। এক্ষেত্রে সে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল হতে শুরু করে পার্বত্য অঞ্চল সব কিছুরই ভিডিও করা হয় এবং সর্বদা স্যাটেলাইট দ্বারা তাদেরকে অনুসরণ করার ব্যবস্থা করা। ফলশ্রুতিতে তাদের সেই ছবি ও ভিডিওকে উপজীব্য করে অহরহ ড্রোন হামলা করছে মার্কিন সন্ত্রাসীরা।
সম্প্রতি বাংলাদেশের সরকারের সার্বিক পৃষ্ঠপোষকতায় গুগল দেশব্যাপী ছবি সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এক্ষেত্রে আধুনিকায়নের পচা মুলা দেখানো হচ্ছে দেশবাসীকে। কিন্তু এসবের শেষ পরিণতি সম্পর্কে একবারও কি সরকার ভেবেছে? গুগল ছবি সংগ্রহের ভয়াবহ পরিণাম টের পেয়ে ইউরোপের অনেক দেশ এ কার্যক্রম নিষিদ্ধ করেছে। অথচ আমাদের সরকার করছে পৃষ্ঠপোষকতা।
আধুনিকায়নের চেয়ে স্বাধীনতা রক্ষা অধিক জরুরী। পুরো দেশের ছবি সংগ্রহের মাধ্যমে বিধর্মী সন্ত্রাসীরা দেশের অবকাঠামো নখদর্পণে আনছে। অতঃপর সময়-সুযোগ বুঝে তারা তাদের ঘরে বসেই বাঙালির রক্তের স্বাদ গ্রহণ করবে। অর্থাৎ গুগলের এই কাজ দেশের স্বাধীনতার জন্য হুমকিস্বরূপ। এছাড়া গোপনীয়তা বলতে দেশের কোনো কিছুই তখন থাকবে না।
মূলকথা হলো, দেশব্যাপী গুগলের ছবি সংগ্রহ কার্যক্রম অদূর ভবিষ্যতে এ দেশবাসিকে বিধর্মীদের তৈরি নতুন অস্ত্রের পরীক্ষাগার আর দেশবাসীকে গিনিপিগ বানাবে। যার পরিণাম কতই ভয়াবহ ও নৃসংশতা কল্পনার বাহিরে। তাই সরকারের উচিত স্বাধীনতা ও নিরাপত্তার বৃহত্তম স্বার্থে এই সব কার্যক্রম বন্ধ করা। নিষিদ্ধ করা। অন্যথায় বাংলাদেশও পাকিস্তানের ন্যায় হয়ে যেতে পারে।

Views All Time
1
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে