আপনি কি যাকাতের নামে নিম্নমানের সস্তা কাপড় নিজের বা পরিবরের জন্য পছন্দ করেন?


বর্তমান অনেক দোকানে ‘যাকাতের কাপড় পাওয়া যায়” ব্যানার লাগানো থাকে।এই সমস্ত কাপড় এত নিম্নমানের ও সস্তা যে এক-দুই বার ধোয়ার পরে তা আর ব্যবহার করা যায় না। এসব নিম্নমানের কাপড় পরে অনেকে বিভিন্ন ধরনের চর্মরোগেও আক্রান্ত হয়। কোন লোক তার নিজের কিংবা পরিবারের জন্য এ ধরণের নিম্নমানের কাপড় কিনা তো দুরের কথা কিনার কথা চিন্তাও করেনা। এ জাতীয় নিম্নমানের মানের কাপড় দিয়ে যাকাত প্রদান মুলত যাকাতকে ইহানত করার শামিল। কেননা মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন,”তোমরা কখনই নেকী, কল্যাণ হাছিল করতে পারবে না, যে পর্যন্ত না তোমরা তোমাদের প্রিয় বা পছন্দনীয় বস্তু দান করবে এবং তোমরা যা কিছু দান করো সে সম্পর্কে মহান আল্লাহ পাক তিনি অবশ্যই পূর্ণ খবর রাখেন। “ (সম্মানিত সূরা আলে ইমরান: সম্মানিত আয়াত শরীফ ৯২)। আর পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “কোন ব্যক্তি পবিত্র বা উৎকৃষ্ট বস্তু হতে দান করলো। আর মহান আল্লাহ পাক তিনি তো পবিত্র বা উৎকৃষ্ট ব্যতীত কোন কিছুই কবুল করেন না।” (বুখারী শরীফ)।  মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেছেন, “তোমরা আমার রাস্তায় অতি উত্তম জিনিস দান করো।” পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমাদের কেউই পূর্ণ ঈমানদার হতে পারবে না, যতক্ষণ না তোমরা তোমাদের ভাইয়ের জন্য তা-ই পছন্দ করবে যা সে নিজের জন্য পছন্দ করো।” (বুখারী শরীফ, মুসলিম শরীফ)। পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে, “নিজের জন্যে তোমরা যা পছন্দ করবে না অন্যের জন্যেও তা পছন্দ করবে না।”(মিশকাত শরীফ)। উপরোক্ত আলোচনা দ্বারা এই প্রমাণিত হয় যে জিনিস মানুষ নিজের জন্য বা পরিবারের জন্য পছন্দ করে না সেই জিনিস মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টির জন্য দান করা কিংবা যাকাত দেয়া মুলত মহান আল্লাহ পাক উনার অসন্তুষ্টির কারণ। তাই সকলের দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে, যেকোন ধরণের দান, সদকা, যাকাত ইত্যাদির ক্ষেত্রে উত্তম জিনিস প্রদান করা। মহান আল্লাহ পাক ও নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি আমাদেরকে তৌফিক দান করুন। আমিন।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে