আপন মাতৃভূমির স্বার্থ বিলিয়ে অন্য দেশের সাথে এ কেমন বন্ধুত্ব?


আপন মাতৃভূমির স্বার্থ বিলিয়ে অন্য দেশের সাথে এ কেমন বন্ধুত্ব?

সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “স্বদেশের প্রতি মুহব্বত পবিত্র ঈমান উনার অঙ্গ।” বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান নিজের জীবন থেকে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশকে বেশি ভালবাসতেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশের স্বার্থের বিষয়ে বিদেশী রাষ্ট্রের সাথে কোনো আপোস করেনি। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান ভারতে নেমেই তৎকালীন ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে সর্ব প্রথম বলেছিলেন- তোমার দেশের সেনাবাহীনিকে আমাদের দেশ থেকে তাড়াতাড়ি সরাও। কিন্তু বর্তমানে দেশের দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের থেকে মাতৃভূমির ভালোবাসা গায়েব হয়ে গেল নাকি? বর্তমানে দেশের দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের উচিত- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জীবন থেকে দেশপ্রেমের শিক্ষা নেয়া।
ভারত আমাদের পার্শবর্তী দেশ, তাদের আগ্রাসী মনোভাবের প্রতি আমাদের সতর্কতা অবলম্বন না করে, তাদের প্রতি নতজানু ভাব প্রকাশ করা, কথিত বন্ধুত্বের কথা বলা- এটা কখনোই একজন প্রকৃত দেশপ্রেমিক মানতে পারে না। মাতৃভূমির স্বার্থ বিলিয়ে অন্য দেশের সাথে কি করে বন্ধুত্ব হতে পারে?

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে