আফসোস! তাদের জন্য যারা হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের সম্মানিত লক্বব মুবারকগুলো না জানার কারণে উনাদেরকে চিনতে পারেনা; এজন্য সিলেবাসে উনাদের সাওয়ানেহ উমরী মুবারকসহ লক্বব মুবারকগুলো অন্তর্ভুক্ত করা আব্যশক


সম্মানিত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরকে ডাকা বা আহবান মুবারক করার সর্বোত্তম আদব মুবারক বজায় রাখা মহান আল্লাহ পাক উনারই সম্মানিত নির্দেশ মুবারক। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন,
وَلِلّهِ الأَسْمَاء الْحُسْنَى فَادْعُوهُ بِهَا وَذَرُواْ الَّذِينَ يُلْحِدُونَ فِي أَسْمَآئِهِ سَيُجْزَوْنَ مَا كَانُواْ يَعْمَلُونَ
অর্থ: মহান আল্লাহ পাক উনার সম্মানিত বরকতময় অসংখ্য উত্তম নাম মুবারক রয়েছেন। কাজেই উক্ত নাম মুবারক অর্থাৎ লক্বব মুবারক ধরেই উনাকে ডাকুন। আর তাদেরকে বর্জন করুন, যারা উনার নাম মুবারক বিকৃত করে। তারা নিজেদের কৃতকর্মের ফল শীঘ্রই পাবে। (পবিত্র সূরা আ’রাফ শরীফ; পবিত্র আয়াত শরীফ ১৮০)
একইভাবে বর্ণিত হয়েছে,
ولرسول الله صلي الله عليه وسلم الأَسْمَاء الْحُسْنَى فَادْعُوهُ بِهَا ولاهل البيت العظيم عليهم السلام الأَسْمَاء الْحُسْنَى فَادْعُوهُم بِهَا
অর্থাৎ নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলইহি ওয়া সাল্লাম উনার সম্মানিত অসংখ্য অগণিত বরকতময় নাম মুবারক রয়েছেন, উনার সম্মানিত হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদেরও অসংখ্য অগণিত সম্মানিত বরকতময় নাম তথা লক্বব মুবারক রয়েছেন, আর উনাদের সেই বরকতময় সম্মানিত লক্বব মুবারক ধরেই আপনারা ডাকুন যা আপনাদের জন্য দুয়া ক্ববুল হওয়া ও নাযাত লাভের উছীলা হবে। সুবাহানাল্লাহ! (পবিত্র ক্বওল শরীফ)
হযরত আহলু বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মধ্যমণি হলেন হযরত উম্মাহাতুল মু’মিনীন আলাইহিন্নস সালাম উনারা। আর উনাদের লক্বব মুবারক ও উনাদের বিষয়ে সন্তানদের ইলম নেই বললেই চলে।
সম্মানিত ইলম বলতে পবিত্র কুরআন শরীফ, পবিত্র হাদীছ শরীফসহ সকল প্রকার ছহীহশিক্ষা ও জ্ঞান-বিজ্ঞানের চর্চাকে বুঝানো হয়। পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার মধ্যে ইলম মুবারক অর্জনকে সর্বাবস্থায়উৎসাহিত করা হয়েছে। ইলম অর্জনকে ইবাদত হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেছেন:
يَرْفَعِ اللَّهُ الَّذِينَ آمَنُوا مِنكُمْ وَالَّذِينَ أُوتُوا الْعِلْمَ دَرَجَاتٍ وَاللَّهُ بِمَا تَعْمَلُونَ خَبِيرٌ
অর্থ: আপনাদের মধ্যে যারা ঈমান এনেছেন এবং যাদেরকে ইলম মুবারক দান করা হয়েছে মহান আল্লাহ পাক তিনি উনাদেরকে উচ্চ মর্যাদায় উন্নীত করবেন। আপনারা যা করেন মহান আল্লাহ পাক তিনি সেসব বিষয়ে সম্যক অবগত রয়েছেন। (পবিত্র সূরা মুজাদালাহ শরীফ; পবিত্র আয়াত শরীফ ১১)
ইলম শিক্ষার আহবান যেমন জানানো হয়েছে তেমনি অর্জিত ইলম সবাইকে জানিয়ে দিতেও বলা হয়েছে। আর সেই ইলম জানিয়ে দেয়ার জন্যই সরকারীভাবে পদক্ষেপ গ্রহণ করার আবশ্যকতা অত্যন্ত জরুরী। সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার স্বর্ণযুগে পবিত্র মসজিদে পবিত্র কুরআন শরীফ, পবিত্র হাদীছ শরীফ ও ফিকাহর ওপর আলোচনার পাশাপাশি রসায়ণ, পদার্থবিদ্যা, উদ্ভিদবিদ্যা, ভেষজ বিজ্ঞান এবং জ্যোতি বিজ্ঞানের উপরও আলোচনা হতো।
কিন্তু বর্তমানে দেখা যাচ্ছে যে, নামধারী মুসলমানরা এসব বিষয়ে একদম অজ্ঞ। উল্টো কাফির-মুশরিকদের চুরি করা জ্ঞান-বিজ্ঞান, হারাম কালচার তাদের মুখস্থ-ঠোটস্থ। যা খুবই দুঃখজনক।
কাজইে উম্মুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের সম্মানিত লক্বব মুবারকগুলো না জানার কারণে সন্তানেরা উনাদেরকে চিনতে পারেনা; এজন্য তারেদর জন্য আফসোস! আর এই আফসোসকে দূর করতে সিলেবাসে উনাদের সাওয়ানেহ উমরী মুবারকসহ লক্বব মুবারকগুলো অন্তর্ভুক্ত করা আব্যশক।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে