আর মাত্র ১৮ দিন পর- কুল-কায়িনাতের শ্রেষ্ঠ ঈদ সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ তথা পবিত্র ১২ই রবিউল আউয়াল শরীফ


পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ-এ ইরশাদ হয়েছে- “হে মানব জাতি! অবশ্যই তোমাদের মধ্যে মহান আল্লাহ পাক উনার পক্ষ থেকে এসেছেন মহান নছীহতকারী তোমাদের অন্তরের সকল ব্যাধিসমূহ দূরকারী। মহান হিদায়েতকারী ও ঈমানদারদের জন্য মহান রহমতস্বরূপ।”

“হে হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি উম্মাহকে জানিয়ে দিন, আল্লাহ পাক তিনি স্বীয় অনুগ্রহ ও রহমত হিসেবে উনার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে পাঠিয়েছেন, সে কারণে তারা যেনো খুশি প্রকাশ করে। এই খুশি প্রকাশ করাটা সেসবকিছু থেকে উত্তম, যা তারা দুনিয়া ও আখিরাতের জন্য সঞ্চয় করে।” (সূরা ইউনুস : আয়াত শরীফ ৫৮)
এই আয়াত শরীফ-এ আল্লাহ পাক ঈদে মীলাদুন নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পালনের আদেশ দিয়েছেন। তাই ঈদে মীলাদুন নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পালন করা প্রত্যেকের  জন্য ফরয।
অতএব, কুল-কায়িনাতের সকলের জন্য ফরয ওয়াজিব হচ্ছে- ঈদে মীলাদুন নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি উপলক্ষে খুশি প্রকাশ করে হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার শাফায়াত লাভে নিজেকে ধন্য করা। আল্লাহ পাক আমাদেরকে  কবুল করুন।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+