আল্লাহ্‌ পাক উনার সন্তুষ্টি লাভের মূল মাধ্যম…


নূরে মুজাসসাম হাবীবুললাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার মহাসম্মানিত হযরত আওলাদ আলাইহিমুস সালাম উনারা মোট ৮ জন। উনাদের মধ্যে সপ্তম হচ্ছেন বিদয়া’তুম মির রসূল, সাইয়্যিদাতুন নিসায়ীল আলামীন, সাইয়্যিদাতু নিসায়ী আহলিল জান্নাহ্‌, উম্মু আবীহা,সাইয়্যিদাতুনা হযরত ফাতিমাতুয যাহরা আলাইহাস সালাম উনি, সুবহানাল্লাহ্‌।
২০শে জুমাদাল উখরা জুমুয়ার দিন সুবহে সাদিক এর সময় হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম যমীনে আগমন করেন অর্থাৎ বিলাদত শরীফ গ্রহণ করেন।আজ সেই সুমহান বরকতময়,ছাকীনাপূর্ণ,নিয়ামত লাভের দিন।সুবহানাল্লাহ্‌।
হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনার মর্যাদা-মর্তবা,শান-মান বেমেছাল যা বান্দা-বান্দীর উপলব্ধির বাইরে।একজন মহিলার জন্য সর্বোত্তম আমল তথা পর্দা পালন থেকে শুরু করে প্রতিটি ক্ষেত্রে কীভাবে চলা উচিত তা তিনি আমাদেরকে শিখিয়ে দিয়েছেন।
উনি ছিলেন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার জিসিম মুবারক উনার গোশত মুবারক এর একখানা টুকরা মুবারক।সুবহানাল্লাহ্‌ । হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনাকে সন্তুষ্ট করার মানে হলো হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে সন্তুষ্ট করা।সুবহানাল্লাহ্‌।উনাকে কষ্ট দেয়া মানে হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকেই কষ্ট দেয়া ।নাঊযুবিল্লাহ্‌ ।
কাজেই বান্দা-বান্দীর জন্য কস্মিনকালেও উচিত হবে না উনাদের কষ্টের কারণ হয় এমন কিছু বলা বা করা।অথচ অনেকেই দেখা যায় বলে থাকে উনি গরীব ছিলেন,ক্ষুধার তাড়নায় পেটে পাথর বেঁধেছেন ইত্যাদি নাঊযুবিল্লাহ্‌ । যা ঈমানহানীর কারণ।উনারা কেউই গরীব ছিলেন না বরং উনি সহ আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের সকলেই সমস্ত কিছুই দান করে দিতেন ।
কাজেই সকলের উচিত হবে হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনি সহ হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের সকলের প্রতি বিশুদ্ধ আক্বীদা পোষণ করা এবং উনাদের শানের খিলাফ হয় এমন কথা থেকে বিরত থেকে উনাদের খাছ সন্তুষ্টি রেযামন্দী হাছিল করা। কেননা হাদীস শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত হয়েছে,“মহান আল্লাহ পাক তিনি তোমাদেরকে খাওয়া পরার যে নিয়ামত মুবারক দিয়েছেন সেজন্য মহান আল্লাহ পাক উনাকে মুহব্বত করো।আর আমাকে মুহব্বত করো মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক লাভ করার জন্য।আর আমার হযরত আহলে বাইত শরীফ উনাদেরকে মুহব্বত করো আমার সন্তুষ্টি মুবারক উনার জন্য।” (তিরমিযী শরীফ,মিশকাত শরীফ)
কাজেই আল্লাহ পাক এবং আল্লাহ পাক উনার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদের সন্তুষ্টি তথা মুহব্বত মুবারক হাছিল করতে চাইলে অবশ্যই অবশ্যই হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের মুহব্বত মুবারক হাছিল করতে হবে।
কাজেই মহান আল্লাহ পাক যেন আমাদের সকলকেই হযরত যাহরা আলাইহাস সালাম উনার সম্মানার্থে হযরত আহলে বাইত শরীফ আলাইহিমুস সালাম উনাদের ছানা-ছিফত,তাযীম-তাকরীম করার এবং খিদমত মুবারক উনার আঞ্জাম দেয়ার তৌফিক দান করে উনাদের সন্তুষ্টি রেযামন্দী হাছিল করার তৌফিক দান করেন।।আমীন।।Picture13

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে