ইখলাছ সম্পর্কে


মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে পবিত্র সূরা জারিয়াত শরীফ উনার ৫৬নং পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন যে,
وَمَاخَلَقْتُ الْجِنَّ وَ الْاِنْسَ الَّا لِيَعْبُدُوْنَ.
অর্থ: “আমি জিন ও ইনসান (মানুষ) সৃষ্টি করেছি একমাত্র আমার ইবাদত বন্দেগী করার জন্য।”
এখন ইবাদত তো আমরা বিভিন্নভাবেই করে থাকি। যেমন: পবিত্র নামায পড়া, পবিত্র রোযা রাখা, পবিত্র কুরআন শরীফ তিলাওয়াত করা ইত্যাদি সবকিছুই পবিত্র ইবাদত উনার অন্তর্ভূক্ত। এখন কথা হলো আমাদেরকে ইবাদতটা কীভাবে করতে হবে? আর এই ইবাদত করা সম্পর্কে মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন যে,
وَمَا اُمِرُوْا اِلَّا لِيَعْبُدُ وْا اللهَ مُخْلِصِيْنَ لَه الدِّيْنَ.
অর্থ: “মহান আল্লাহ পাক তিনি নির্দেশ মুবারক দিয়েছেন যে বান্দারা যেন পবিত্র ইখলাছ উনার সাথে আমার ইবাদত বন্দেগী করে।” সুবহানাল্লাহ!
এখন পবিত্র ইখলাছ উনার সাথে আমল করতে হলে প্রথমে আমাদেরকে জানতে হবে পবিত্র ইখলাছ অর্থ কী? পবিত্র ইখলাছ অর্থ হচ্ছে একনিষ্ঠতা বা একাগ্রতা। এখন আমাদের মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক অর্জন করতে হলে একাগ্রচিত্তে ইবাদত-বন্দেগী করতে হবে। কারণ ইখলাছ ব্যতীত মহান আল্লাহ পাক তিনি কোনো আমল কবুল করেন না। আমরা তো সবাই চাই যে মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক হাছিল করতে। তাই এখন আমাদেরকে পবিত্র ইখলাছ উনার সাথে আমল করে মহান আল্লাহ পাক উনার সন্তুষ্টি মুবারক হাছিল করতে হবে। পবিত্র ইখলাছ উনার সহিত আমল করতে হলে একজন হক্কানী আলিম উনার নিকট বাইয়াত গ্রহণ করতে হবে। এখন আমাদের উচিত একজন হক্কানী-রব্বানী আলিম উনার নিকট বাইয়াত গ্রহণ করে পবিত্র ইখলাছ উনার সহিত আমল করা। আমাদেরকে পবিত্র ইখলাছ উনার সাথে আমল করার তাওফীক দান করুন আয় মহান আল্লাহ পাক! (আমীন)।

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে