ইমামুল আউওয়াল সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি ছিলেন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার একান্ত আপন ও উৎসর্গীত। সুবহানাল্লাহ!


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার একান্ত আপন ছিলেন সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি। হিজরতের সময় নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি নিজের বিছানায় উনাকে শুইয়ে রেখে পবিত্র মদীনা শরীফ উনার পথে রওয়ানা হন। তিনি নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নূরানী সম্মনিত পরিবার উনার একজন সদস্য হিসেবে বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করেন। মদীনা শরীফে যাওয়ার সময় অনেক লোকের টাকা পয়সা নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার কাছে জমা ছিল। তিনি সেই সকল ধন-সম্পদ মালিকদের নিকট ফিরিয়ে দেয়ার জন্য সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম উনাকে দায়িত্ব দিয়ে যান। তিনি সে দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করেন। অতঃপর তিনিও মদীনা শরীফ গিয়ে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার সাথে মিলিত হন।
পবিত্র মদীনা শরীফ উনার লোকেরা দলে দলে ইসলাম গ্রহণ করেন। সকল মুসলমানের মাঝে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন গড়ে তোলার জন্যে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি এক বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করেন। পবিত্র মক্কা শরীফ থেকে আগত মুহাজির ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু আনহুম উনাদের সাথে মদীনা শরীফ অবস্থানকারী আনছার ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু আনহুম উনাদের মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে ভ্রাতৃত্ব বন্ধন স্থাপন করেন। শুধু বাকি রয়ে গিয়েছিলেন সাইয়্যিদুনা হযরত কাররামাল্লাহু ওয়াজহাহূ আলাইহিস সালাম তিনি। এ সময় তিনি অশ্রুসজল নয়নে এসে জিজ্ঞাসা করলেন, ইয়া রসূলাল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! সকলের মাঝে ভ্রাতৃত্ব বন্ধন স্থাপন করলেন, অথচ আমাকে কারো সাথে ভ্রাতৃত্ব বন্ধনে আবদ্ধ করলেন না। তখন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি সহাস্য বদন মুবারকে বললেন, আমার সাথে আপনার বন্ধন। দুনিয়া ও আখিরাত উভয় স্থানেই আপনি আমার ভাই। নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি আরো বলেছেন, হযরত মূসা কালীমুল্লাহ আলাইহিস সালাম উনার এবং হযরত হারূন আলাইহিস সালাম উনাদের মধ্যে যে সম্পর্ক ছিল, আমার ও আপনার মধ্যেও সেই সম্পর্ক। সুবহানাল্লাহ। পার্থক্য এতটুকু যে, আমার পরে আর কোন নবী নেই।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে