ইসলামী জীবন- শুরুটা কঠিন মনে হলেও কিছু দিন কোশেশ করলে অভ্যাসে পরিণত হয়ে যায় এবং সহজ মনে হয়


মানুষ দৈনন্দিন জীবনে যা করে তা অভ্যাসে পরিণত হয়ে যায়। অর্থাৎ মস্তিষ্কে ওই কর্মকা-গুলো সেট হয়ে যায়। মুসলমানদের জীবনে প্রতিটি কাজ ইসলামসম্মত হতে হবে। যেভাবে জীবনযাপন করেছেন সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যেভাবে জীবনযাপন করেছেন সেভাবে জীবনযাপন করাই সুন্নতী জীবন, ইসলামী জীবনযাপন।  বর্তমানে অধিকাংশ মুসলমান জনগোষ্ঠী বিজাতীয় ভাবধারায় গঠিত আংশিক মুসলমান। এই আংশিক সুবিধাবাদী ইসলাম আল্লাহ পাক ও উনার হাবীব হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নিকট গ্রহণযোগ্য নয়। জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে যদি আমরা সুন্নত প্রতিষ্ঠা করতে পারি তবেই জিন্দেগী কামিয়াব। কারণ প্রতিটি সুন্নত এনে দেয় ন্যূনতম ১০০ শহীদের মর্তবা। বিষয়টি সহজ; প্রথমে অভ্যাসে দৃঢ় থাকলে এমনি এমনি সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে। যেমন ঘর থেকে বের হতে বা পা আগে আবার ঘরে ঢুকতে ডান পা আগে মসজিদে প্রবেশের বেলাও একই রূপ। ইস্তিঞ্জাখানায় ঢুকতে বা পা আগে, বের হতে ডান পা আগে ইত্যাদি।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+