ইহুদীদের বশংবদ সউদী ওহাবীরা ফেরাউনী শাসন কায়িমের স্বপ্নে বিভোর হয়ে মুসলিম দেশগুলো দখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে


সিরিয়া, মিশর, লেবাননসহ মুসলিম দেশগুলোতে হামলা চালানোর জন্য, মুসলমান নিধন করার জন্য মরিয়া সউদী ওহাবী রাজপরিবার। সিরিয়া ইস্যু গরম রেখে এদিকে মিশরে গোপনে চালাচ্ছে মুসলিম গণহত্যা। যা সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত না হলেও মিশরের নির্যাতিতরা বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করছে। আর এসব গণহত্যার পেছনে অর্থ যোগান দিচ্ছে সউদী ওহাবীরা; তাও প্রকাশ হচ্ছে বিভিন্ন মাধ্যমে। এদিকে সিরিয়ায় শুধুমাত্র রাসায়নিক অস্ত্র ধ্বংস নয়, বরং গোটা সিরিয়ার উপর হামলা চালানোর জন্য পশ্চিমা হানাদার সম্প্রদায়কে চাপ দিচ্ছে মুসলমানদের রক্ত খেকো ইহুদী বংশধর সউদী রাজপরিবার। ‘অতশত বুঝি না, সিরিয়ায় হামলা চালান’- সম্প্রতি সউদী যুবরাজ সালমান বিন আবদুল আজিজের সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার সাপ্তাহিক বৈঠকের পর এক বিবৃতিতে সে আমেরিকাকে উদ্দেশ্য করে এমন আহ্বান জানিয়েছে। সউদী ওহাবীদের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এসপিএ এ সংবাদ প্রকাশ করেছে। এর প্রতিক্রিয়ায় ব্যাপক সমালোচনা আসছে সারা বিশ্বের সাধারণ মুসলমানদের থেকে। মুসলিম বিশ্বের মোড়ল সেজে সউদী ওহাবী শাসকরা ওইসব মুসলিমবিদ্বেষীদের গোলাম হয়েছে, যাদের ব্যাপারে খোদ পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে মুসলমানদের হুঁশিয়ার করে দেয়া হয়েছে। মহান আল্লাহ পাক তিনি এও জানিয়ে দিয়েছেন যে, ‘মুসলমানদের প্রধান শত্রু হচ্ছে ইহুদী।’ আর এই ইহুদীদের সাথেই সউদী ওহাবী শাসকরা হাত মিলিয়েছে, অর্থ যোগান দিয়ে যাচ্ছে মুসলমানদের গণহত্যা করার জন্য। নাউযুবিল্লাহ।

এই বিশ্ব মুনাফিক সউদী ওহাবীরা মুসলিম দেশগুলো দখল করে সেখানে ফেরাউনী শাসন কায়িম করার রঙ্গিন স্বপ্ন দেখছে। কিন্তু সউদী ওহাবী রাজপরিবার ক্ষমতার নেশায় এতোটা বুঁদ হয়ে আছে যে, ফেরাউনের পরিণতির কথা বেমালুম ভুলে গেছে। ইহুদী-খ্রিস্টানদের তারা এতোটা বিশ্বাস করছে যে, এরা যে সউদী ওহাবীদের সাথে সাদ্দাম, গাদ্দাফিদের মতোও আচরণ করতে পারে, এটা তাদের ধারণার বাইরে।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে