সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দু:খিত। ব্লগের উন্নয়নের কাজ চলছে। অতিশীঘ্রই আমরা নতুনভাবে ব্লগকে উপস্থাপন করবো। ইনশাআল্লাহ।

উলামায়ে ‘সূ’ ধর্মব্যবসায়ীদের মাদ্রাসায় পবিত্র কুরবানীর পশুর চামড়া বা মূল্য দিলে গুনাহ হবে


জামাতী, ওহাবী, খারিজী; দেওবন্দী ক্বওমী মতাদর্শের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো সন্ত্রাসী তৈরির কেন্দ্র। সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার দোহাই দিয়ে, সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার নামে গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক স্বার্থ ও প্রতিপত্তি হাছিলের প্রকল্প। সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার নামে নির্বাচন করার ও ভোটের রাজনীতি করার পাঠশালা- যা সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার মধ্যে সম্পূর্ণ হারাম।
কাজেই, জামাতী, খারিজী, তাবলীগী, ওহাবী সন্ত্রাসী ও মৌলবাদী তথা ধর্মব্যবসায়ীদের মাদ্রাসাতে পবিত্র কুরবানীর পশুর চামড়া দিলে তা কস্মিনকালেও আদায় হবে না।
খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “তোমরা নেককাজে পরস্পর পরস্পরকে সাহায্য করো। বদকাজে পরস্পর পরস্পরকে সাহায্য করো না। আর এ বিষয়ে খালিক্ব, মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনাকে ভয় করো। নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি কঠিন শাস্তিদাতা।” (পবিত্র সূরা মায়িদা শরীফ : পবিত্র আয়াত শরীফ- ২)
আফদ্বালুন নাস বা’দাল আম্বিয়া হযরত ছিদ্দীক্বে আকবর আলাইহিস সালাম তিনি পবিত্র যাকাতের পশুর একটি রশির জন্যও জিহাদ অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন। কাজেই পবিত্র যাকাতের একটি রশির মতোই পবিত্র কুরবানীর পশুর একটি চামড়াও যাতে ভুল উদ্দেশ্যে ও ভুল পথে পরিচালিত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
কাজেই পবিত্র কুরবানীর চামড়া দিয়ে যারা ছদকায়ে জারীয়ার ছওয়াব হাছিল করতে চান, তাদের জন্য একমাত্র ও প্রকৃত স্থান হলো ‘মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ-সুন্নতী মাদরাসা ও ইয়াতীমখানা’ ৫নং আউটার সার্কুলার রোড, রাজারবাগ, ঢাকা।

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে