একজন মুসলমান উনার কি কি বৈশিষ্ট্য থাকা উচিত-


১) একজন মুসলমান সর্বক্ষেত্রে মহান আল্লাহ পাক এবং উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাদেরকে সকল বিষয়ে ফয়সালাকারী হিসেবে মেনে নিবেন। উনারা যে আদেশ মুবারক করেছেন, তার খিলাফ কখনো চিন্তাও করবেন না।
২) একজন মুসলমান কখনোই কাফিরদের অনুসরণ-অনুকরণ করবেন না, তিনি সবসময় নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে অনুসরণ করার কোশেশে নিয়োজিত থাকবেন।
৩) একজন মুসলমান পাঁচ ওয়াক্ত নামায আদায় করবেন, পবিত্র রমাদ্বান মাসে রোযা রাখবেন, পবিত্র যাকাত ফরয হলে যাকাত দিবেন এবং পবিত্র হজ্জ ফরয হলে পবিত্র হজ্জ আদায় করবেন।
৪) একজন মুসলমান সর্বক্ষেত্রে মুসলিমদের সাথে ভাইয়ের মতো আন্তরিক সম্পর্ক বজায় রাখবেন।
৫) একজন মুসলমান কখনোই কাফিরদের প্রতি মুহব্বত রাখবেন না। কাজ-কর্মের স্বার্থে সম্পর্ক থাকতে পারে, তবে সেটা বাহ্যিক। আত্মিক ভালোবাসার সম্পর্ক থাকবে না।
৬) একজন মুসলমান তিনি কখনোই হারাম ছবি তুলবেন না, বেপর্দা হবেন না, হারাম টিভি-চ্যানেল দেখবেন না, হারাম গান-বাজনা শুনবেন না, হারাম খেলাধূলা করা বা দেখা কোনোটাই করবেন না। তিনি কখনোই সুদ-ঘুষ খাবেন না, মদ ও হারাম খাদ্য ছুবেন না।
৭) একজন মুসলমান তিনি সবসময় পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার বিশেষ দিবসসমূহ ((যেমন: পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ, লাইলাতুল বরাত, লাইলাতুল ক্বদর, পবিত্র আশূরা) পালন করবেন। কিন্তু তিনি কিছ্ইুতে কাফির-মুশরিকদের বিজাতীয় দিবসসমূহ (যেমন: পহেলা বৈশাখ, থার্টি ফাস্ট নাইট, বাবা দিবস, মা দিবস, ভালোবাসা দিবস ইত্যাদি) পালন করবেন না।

খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের প্রত্যেককে হাক্বীক্বী মুসলমান হওয়ার তাওফীক দান করুন। আমীন!

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+