একটি ভুল প্রচার নিরসন! পবিত্র কুরআন শরীফের প্রথম বাংলা অনুবাদক কে ?


একটি ভুল প্রচার নিরসন!
পবিত্র কুরআন শরীফের প্রথম বাংলা অনুবাদক কে ?
জানি ৯০% মুসলিম উত্তর দিবে “গিরিশ চন্দ্র সেন”। কিন্তু এটি ভুল তথ্য।
সর্বপ্রথম বাংলা ভাষায় পবিত্র কুরআন শরীফের আংশিক অনুবাদ করেন
#মাওলানা_আমীরুদ্দীন_বসুনিয়া ১৮০৮ সালে।
এরপর বাংলা ভাষায় পবিত্র কুরআন শরীফের পূর্ণাঙ্গ অনুবাদ করেন মৌলভী নাঈমুদ্দীন ১৮৩৬ সালে।
গিরিশ চন্দ্র সেন শুধু উক্ত অনুবাদকে পুস্তক আকারে সন্নিবেশ করেছে। তাও অনেক পরে, ১৮৮৬ সালে।
সুতরাং পবিত্র কুরআন শরীফের প্রথম বাংলা অনুবাদক গিরিশ চন্দ্র নয়, বরং মৌলভী নাঈমুদ্দীনই পূর্ণাঙ্গ পবিত্র কুরআন শরীফের প্রথম বাংলা অনুবাদক।
আর মাওলানা আমীরুদ্দীন বসুনিয়া হলেন বাংলা ভাষায় প্রথম পবিত্র কুরআন শরীফের আংশিক অনুবাদক।
গিরিশ চন্দ্র সেনের জন্ম ১৮৩৫ সালে এবং মৃত্যু ১৯১০ সালে। গিরিশ চন্দ্রের জন্মেরও আগে অর্থাৎ ১৮০৮ সালে পবিত্র কুরআন শরীফের বাংলায় অনুবাদের কাজ শুরু করেন মাওলানা আমীর উদ্দীন বসুনিয়া।
এরপর গিরিশ চন্দ্র সেনের জন্মের একবছর পরই অর্থাৎ ১৮৩৬ সনে মৌলভী নাঈমুদ্দীন পূর্ণাঙ্গ পবিত্র কুরআন শরীফের বাংলা অনুবাদ সম্পন্ন করেন।
খুব-ই গুরুত্বপূর্ণ , আশা করি পোস্টটি পড়ে এ বিষয়টি নিয়ে হীনমণ্যতা কেটে যাবে অনেকের।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে