এদেশে রাজনৈতিক পিতার সমালোচনা করলে শাস্তি হয়, কিন্তু দ্বীন ইসলাম নিয়ে কটূক্তি করলে শাস্তি হয় না!!


দেশের মানুষ এখন অনেক বেশি রাজনীতিতে সচেতন হয়েছে, আইন আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়েছে, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের সম্মান দিতে শিখেছে। তাইতো এদেশে কোনো রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের সমালোচনা হলে, কটূক্তি করা হলে প্রশাসন তাদের হন্যে হয়ে খুঁজে, তাদের জেল দেয়, জরিমানা দেয়। কেউ আদালত অবমাননা করলে, বিচারককে নিয়ে কটূক্তি করলে তার নামে রুল জারি হয়।

কিন্তু যখন এসব রাজনৈতিক নেতা-কর্মীরা, এসব বিচারকরা ইসলাম নিয়ে কটূক্তি করে, ইসলামের সুমহান ব্যক্তিত্বগণ উনাদের শান মুবারকে অবমাননাকর বক্তব্য দেয় তখন এদেশের প্রশাসন উটপাখির মতো নিজের চোখ-কান-মুখকে আড়াল করে রাখে। এদেশের সচেতন(!) মানুষরাও বোবা শয়তানের মত চুপসে থাকে। নাউযুবিল্লাহ!

কিন্তু কতদিন এভাবে নিজেদের গা বাঁচিয়ে ইসলামবিদ্বেষীদের সুযোগ করে দিবে এদেশের সরকার ও এদেশের জনগণ? তারা কি মনে করেছে ইসলাম নিয়ে কটূক্তিকারীদের বিরুদ্ধে বললে তার চাকরি যাবে, তার ব্যবসা মন্দা হবে ইত্যাদি ইত্যাদি? যখন হাশরের ময়দানে মহান আল্লাহপাক বলবেন আমার সম্পর্কে এ রকম কটূক্তি করা হয়েছে- তুমি তা জেনেও কেন তার প্রতিবাদ করোনি? যখন নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলবেন- আমার ও আমার ছাহাবা আজমাইন সম্পর্কে যখন অবমাননাকর কটূক্তি করা হয়েছিলো তখন কেন তুমি তার প্রতিবাদ করোনি? তখন এর কি জবাব কি দিবেন- একবারও কি তা ভেবে দেখেছেন? মনে রাখবেন- মহান আল্লাহ পাক উনার ধরা অত্যন্ত কঠিন।

Views All Time
4
Views Today
4
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে