এসব পুথি পড়া মোল্লাদের জন্য মানুষের ঈমান নষ্ট হয়। এরা বানিয়ে বানিয়ে হাদীছ বর্ণনা করে।


নুরুল ইসলাম ওলীপুরী নামক এক জর্দাখোর মৌলবী ওয়াজের মধ্যে বলেছে হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নাকি জানাজা হয়েছে সেখানে নাকি অনেকেই ইমামতি করেছে। এর মধ্যে বড় যে জানাজার জামায়াত হয়েছে সেটার ইমামতি করেছেন হযরত সিদ্দীকে আকবর আবু বকর সিদ্দীক আলাইহিস সালাম (https://youtu.be/e2Z3YfG59Sc)। নাউযুবিল্লাহ মিন যালিক।

নূণ্যতম ইসলামিক জ্ঞানও এ লোকটার নেই। এ বিষয়ে ছিয়াহ ছিত্তার কিতাব ইবনে মাজাহ শরীফেও যে হাদীছ শরীফটা আছে সেটাও সে জানে না। হাদীছ শরীফখানা হচ্ছে,
فَلَمَّا فَرَغُوا مِنْ جِهَازِهِ يَوْمَ الثُّلَاثَاءِ وُضِعَ عَلَى سَرِيرِهِ فِي بَيْتِهِ ثُمَّ دَخَلَ النَّاسُ عَلَى رَسُولِ اللهِ صلى الله عليه وسلم أَرْسَالًا يُصَلُّونَ عَلَيْهِ حَتَّى إِذَا فَرَغُوا أَدْخَلُوا النِّسَاءَ حَتَّى إِذَا فَرَغُوا أَدْخَلُوا الصِّبْيَانَ وَلَمْ يَؤُمَّ النَّاسَ عَلَى رَسُولِ اللهِ صلى الله عليه وسلم أَحَدٌ
মঙ্গলবার তারা (হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু আনহুগন) হযরত রসূলুল্লাহ ছল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার কাফন মুবরাকের কাজ সম্পন্ন করেন এবং উনাকে ঘরে চৌকি মুবরাকের উপর রাখা হয়। এরপর লোকজন (হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু আনহুগন) দলে দলে হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নিকট প্রবেশ করেন এবং উনার প্রতি ছলাত বা দরুদ শরীফ পাঠ করলেন। পুরুষদের পালা শেষ হলে মহিলারা প্রবেশ করেন। তাদের পালা শেষ হলে বালকরা প্রবেশ করেন। হুযুর পাক ছল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি (দরূদ শরীফ প্রেরনের ক্ষেত্রে) কেউ ইমামতি করেননি।

(দলীল: মুসনাদে আবী ইয়ালা : হাদীছ ২২, সুনানে ইবনে মাজাহ ১৬২৮, দালায়েলুন নবুওয়াত ৭/২৬০, নাছবুর রায়াহ ২/২৯৮, কানযুল উম্মাল ১৮৭৬৩, সিরাতুন নাবাবিয়া ইবনে কাছীর ৪/৫৩১, বিদায়া ওয়ান নিহায়া ৫/২৮৭, তারীখে উমাম ওয়াল মুলক ২/২৩৯, আনসাবুল আশরাফ ১/২৪৮)

হাদীছ শরীফে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে উনার শানে কেউ ইমামতি করেন নাই। আর মূর্খ লোকটা বলছে অনেকেই নাকি ইমামতি করেছে। এবং বড় যে জামায়াত হয়েছিলো সে জামায়াতের ইমামতি নাকি হযরত সিদ্দীকে আকবর আবু বকর সিদ্দীক আলাইহিস সালাম করেছেন। নাউযুবিল্লাহ!

এসব পুথি পড়া মোল্লাদের জন্য মানুষের ঈমান নষ্ট হয়। এরা বানিয়ে বানিয়ে হাদীছ বর্ণনা করে। নিজেদের লেখাপড়া নেই মানুষকে বিভ্রান্ত করতে মনে যা আসে বানিয়ে বানিয়ে ওয়াজ করে। এদের বয়কট করুন।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে