কওমী গুরু মুফতী অামিনীর কাছে ঈদে মীলাদুন্নবী হারাম, খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন করা আরাম


প্রধানমন্ত্রীরা নেতৃত্বে বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি দিন দিন উজ্জ্বল হচ্ছে ।

_মুফতী ফজলুল হক আমীনি।স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ইসলামী ঐক্যজোটোর চেয়ারম্যান মুফতী ফজলুল হক আমীনি এমপি তার সাথে সাক্ষাত করে জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছে ।

পরে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে লালবাগ মাদ্রাসার এক দুয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে মোনাজাতের প্রক্কালে মুফতী আমীনি প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ারা সুস্বাস্থ্য এবং দীর্ঘায়ু কামনা করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বলিষ্ঠ পরিচালনায় বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি দিন দিন উজ্জ্বল হচ্ছে ।

এদিকে প্রাপ্ত খবরে আরো জানা যায় ম্যাডামের জন্মদিন উপলক্ষে আমীনি সাহেব গরু জবাই করে ভূরি ভোজনের ব্যবস্থও করেছিলেন। অনেককেই আপ্যায়নও করেছেন।”

তথ্যসূত্র : দৈনিক ইনকিলাব, ১৬ই আগষ্ট,২০০৬ ।

কৌতুহলী মনে উদিত দেওবন্দী কওমীদের কাছে আমার কিছু প্রশ্ন-

১. হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার বিলাদত শরীফ উপলক্ষে পবিত্র ঈদে মীলাদুন্নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পালন করা আপনাদের কাছে বিদয়াত, কিন্তু খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালন করা কোন দলীলে জায়িয ছিলো ?

২. নারী নেতৃত্ব হারাম, কিন্তু কোন দলীলে নারী নেতৃত্বেরা জন্য দোয়া করা এবং প্রসংসা করা বৈধ হলো ?

৩. সম্মিলিত মুনাজাত আপনাদের ভাষায় বিদয়াত, কোন দলীলের ভিত্তিতে খালেদার জন্যে আমীনি সম্মিলিত মুনাজাত করলো ?

৪. সুন্নীরা ঈদে মীলাদুন্নবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উপলক্ষে তাবারুক করলে সেটা অপচয় হয়, কিন্তু খালেদার জন্মদিনে কোন দলীলে গরু জবাই করে ভুরিভোজন করা হলো ?

৫. বেপর্দা হওয়া হারাম, কোন দলীলের ভিত্তিতে আমীনি মুফতী হয়ে মহিলা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করলো ??

আল্লাহ পাক উনার কসম !! যদি ঈমানদার দাবি করে থাকেন নিজেকে তাহলে জবাব দিন !

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে