কথিত নূরে মুহাম্মাদী নামের জাল হাদিসের ভয়ংকর ইতিহাস পড়ুন ওহাবী সালাফীদের এই পোষ্টের খন্ডনমুলক জবাব:-(৫)


ওহাবী সালাফীদের লিংক:- http://markajomar.com/?p=880

দারেমী শরীফ,তিরমিযী শরীফ, বায়হাকী শরীফ , তিবরানী শরীফ এবং ইবনে আসাকির রহমতুল্লাহি আলাইহি হতে বর্ননা মুবারক করেন যে, হযরত ইবনে আব্বাস রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি বর্ননা মুবারক করেন-মহান আল্লাহপাক উনার হাবীব হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনার সম্মুখের দু‘টি দন্ত মুবারক উনার মাঝখানে সামন্য ফাঁক মুবারক ছিল৤ উনি কথা মুবারক বলার সময় মনে হত, সে ফাঁক মুবারক দিয়ে উজ্জ্বল নূর মুবারকের ন্যায় কি যেন বের হইত৤ (মাওলানা মুহাম্মদ কামরুজ্জামান,প্রথম প্রকাশ:-২০০৪ ইং, ,পৃষ্টা নং:-১০৪. বাংলা সংস্করণ)

তিবরানী শরীফে বর্নিত আছে,হযরত আবু কুরছাফাহ রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু বর্ননা মুবারক করেন- আমি আমার মাথা ও খালা একই সময মহান আল্লাহপাক উনার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনার কাছে বাইয়্যাত মুবারক গ্রহণ করলাম৤ ফিরার পথে আমার মাতা ও খালা বর্ননা মুবারক করলেন যে, আমরা মহান আল্লাহপাক উনার হাবীব উনার ন্যায় এমন বেমেছাল সৌন্দর্য্য মুবারক উনার অধিকারী এবং নম্র ভাষী কোন দিন কাউকে দেখিনি৤ আমরা উনার বরকত পুর্ন মুখ মুবারক থেকে নুর মুবারক বের হতে দেখেছি৤ (খাছায়িছুল কুবরা, পৃষ্টা ১০৪)

ইবনে আসাকির রহমুতাল্লাহি আলাইহি তিনি বর্ননা মুবারক করেন- উম্মুল মু‘মিনীন হযরত আয়শা ছিদ্দিকা আলাইহাস সালাম তিনি বলেন, আমি একদা ভোর বেলায় কাপড় মুবারক সেলাই করছিলাম৤ হঠাৎ আমার হাত মুবারক থেকে সুই মুবারকটি পড়ে যাই৤ বহু তালাশ করে পাওয়া গেলনা. ঠিক এমন সময় মহান আল্লাহপাক উনার হাবীব হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি আমার হুজরা শরীফ উনার মধ্যে তাশরীফ মুবারক আনলে উনার চেহেরার নুর মুবারকের আলোতে আমি আমার হারানো সুইটি খুঁজে পাই৤ সুবাহানাল্লাহ!( খাছায়িছুল কুবরা পৃষ্টা ১০৪)

খতীব, ইবনে আসাকির, আবু নাইম এবং দায়লামী শরীফে দুই সনদে ইমাম বুখারী রহমুতাল্লাহি হইতে বর্ননা করেন, যে, উম্মুল মু‘মিনীন হযরত আয়েশা ছিদ্দিকা তিনি বর্ননা মুবারক করেন- একদা আমি সুতা মুবারক কাটছিলাম এবং মহান আল্লাহপাক উনার হাবীব তিনি জুতা মুবারক সেলাই করছিলেন৤ তখন মহান আল্লাহপাক উনার হাবীব হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনার ললাট মুবারক হতে নুরুত ত্বীব বা ঘাম মুবারক নির্গত হচ্ছিল৤ সেই নুরুত ত্বীব মুবারক থেকে নুরের আলো মুবারক বিচ্ছুরিত হচ্ছিল৤ তাহা দেখিয়া আমি আশ্চর্যান্বিত হয়ে গেলাম৤ তখন মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তিনি আমাকে জিজ্ঞাসা মুবারক করলেন, আপনি আশ্চর্যান্বিত মুবারক হলেন কেন? আমি বলিলাম আপনার ললাট মুবারকের ঘাম মুবারক হতে নুর মুবারক বিচ্ছুরিত হতে দেখে৤ ( খাছায়িছুল কুবরা, পৃষ্টা নং ১১৪)

এছাড়াও নবম হিজরী সনের মুজাদ্দিদ, শ্রেষ্ট মুহাদ্দিস ও ইমাম আল্লামা জালালুদ্দিন সুয়ূতি রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি উনার ‘‘আনমুযাজুল লবীব ফি খাছায়েছিল হাবীব’’ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উনার দ্বিতীয় বাবের চতুর্থ অধ্যায়ে লিখেন-لم يفع ظلّه على الارض ولا يرى له ظلّ فى شمس ولا قمر قال ابن سبع لانّه كان نورا قال رزين لغلبة انواره- অর্থ মুবারক:-মহান আল্লাহপাক উনার হাবীব হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ছায়া মুবারক মাটিতে পড়ে নি৤৤ চাদঁ ও সূর্যের আলোতেও উনার ছায়া মুবারক দেখা যেত না৤ হযরত ইবনে সাবা রহমতুল্লাহি আলাইহি বলেন, মহান আল্লাহপাক উনার হাবীব হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি যেহেতু সর্ম্পুন নুর ছিলেন সেহেতু উনার ছায়া মুবারক ছিল না৤ হযরত ইমাম রাজিন রহমতুল্লাহি আলাইহি বলেন, অবশ্যই মহান আল্লাহপাক উনার হাবীব হুজুর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নুর মুবারক সমস্ত কিছুকে ছাড়িয়ে যেতো

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে