কলম্বাস প্রথম আমেরিকা আবিষ্কার করেছে? নাকি চীনের কোন মুসলমান! আসল ইতিহাস জানুন (পর্ব ২)


(পর্ব ১)

ওই সময়ে মুসলমানেরা ছিল সর্বক্ষেত্রে অগ্রসর। বিশেষ করে সমুদ্রে জাহাজ পরিচালনায় তাদের দক্ষতা ছিল অত্যন্ত উচু মানের। আর এ কারণেই মূলত কলম্বাস মুসলমান নাবিকের উপর নির্ভরশীল ছিলো। তাছাড়া সমুদ্রে জাহাজ পরিচালনায় কলম্বাসের কোনো অভিজ্ঞতা না থাকায় মুসলমান পিজোঁ ভ্রাতৃদ্বয়কে তার অন্যতম সঙ্গী হিসেবে বেছে নেয়। যাত্রা শুরুর কয়েক মাস পূর্বে কলম্বাস স্পেনের পশ্চিম প্রান্তসহ অ্যারাবিদা (অৎৎপ্সনরফধ) নামক একটি ছোট্ট শহরে বসবাস শুরু করে। সেখান থেকেই সমুদ্র অভিযানের যাবতীয় পরিকল্পনা সম্পন্ন করে। বস্তু অ্যারাবিদা নামক শহরটি পূর্বে ‘আর রবিতা’ নামে পরিচিত ছিল। মুসলমানদের পরাজয়ের ফলে পরবর্তীতে এই শহরের প্রকৃত নাম বিকৃত করে ‘অ্যারাবিদা’ নামকরণ করা হয়, যা বর্তমানে পর্তুগালের অন্তর্ভুক্ত। অনেকের মতে কলম্বাসের সঙ্গীদের অনেকেই মুসলমান ছিলেন। আর ওই অভিযানে পিজোঁ ভাইদের মতো আরো অনেকেই ছিলেন মুসলমান যাদের পূর্বপুরুষরা মুসলমান থাকলেও তাদেরকে জোরপূর্বক খ্রিস্টধর্ম গ্রহণে বাধ্য করা হয়েছিল বলে প্রমাণিত হয়েছে।

ষোড়শ শতকে আমেরিকায় মুসলমান:
ষোড়শ শতকে আমেরিকায় সন্ধান পাওয়া একজন মুসলমান ছিলেন এস্তেফানিকো। উনার প্রকৃত নাম ছিল মুস্তফা আঝ-জামুরি এবং তিনি ১৫৩৯ ঈসায়ী সনে ইন্তেকাল করেন। মুস্তফা আজ-জামুরি ছিলেন মরক্কোর অধিবাসী। একদল পর্তুগীজ নাবিক উনাকে বন্দি করে ১৫২৭ ঈসায়ী সনে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে নিয়ে যায় এবং দাস হতে বাধ্য করে। দু’একটি সূত্রমতে, পরবর্তীতে তাকে খ্রিস্টধর্ম গ্রহণেও বাধ্য করা হয়। জানা যায়, মুস্তফা আজ-জামুরি তিনি ছিলেন ওষুধ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ। কারো কারো মতে তিনি ছিলেন একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক।

———-

উপরোক্ত লেখাটি বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও গবেষক আল্লামা মুহম্মদ আবু হুরায়রা কর্তৃক সম্পাদিত ও দৈনিক আল ইহসান পত্রিকায় ধারাবাহিক প্রকাশিত।

ইতিহাসের বিস্তারিত আরো জানতে নিয়মিত চোখ রাখুন দৈনিক আল ইহসান পত্রিকায়।

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে