” কাফের, মুশরিকদের বিরুদ্ধে বদদোয়া “


” কাফের, মুশরিকদের বিরুদ্ধে বদদোয়া ”

অনেকে মনে করে কাফির, মুশরিকের বিরুদ্ধেও প্রিয় নবী, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি কোন বদ দোয়া করেন নি! কথাটা সঠিক নয়! নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার পক্ষ থেকে একখানা পত্র মুবারকসহ এক ছাহাবীকে কিসরার (পারস্য সম্রাটের) কাছে প্রেরণ করেন। কিসরা পত্র মুবারকখানা পড়ে তা ছিঁড়ে টুকরা টুকরা করে ফেললো। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ!

এ ঘটনাটি জানার পর হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ওই কাফিরের বিরুদ্ধে এই বলে বদদোয়া করেন যে, আয় আল্লাহ পাক! আপনি তাকেও টুকরা টুকরা করে দিন, তার রাজ্যকেও টুকরো টুকরো করে দিন।

পবিত্র এই সুন্নত মুবারক আদায়ে লক্ষ্যে এবং নিজেদের ঈমান-আমল হেফাজতের লক্ষ্যে মুসলমানদেরও দায়িত্ব হলো- সকল ইহুদী, মুশরিক, খ্রিস্টান, বৌদ্ধদের বিরুদ্ধে তথা সকল কাফিরদের বিরুদ্ধে অর্থাৎ সমস্ত বিধর্মী, মুনাফিক মুরতাদদের বিরুদ্ধে অত্যন্ত কঠিনভাবে বদদোয়া করা।

যালিম, অত্যাচারী কাফিরদের প্রতি খুব সহজে যে বদদোয়াটি করা যায় তা এরূপ-

اَللّٰهُمَّ اَهْلِكِ الْكَفَرَةَ وَالْفَسَقَةَ وَالْفَجَرَةَ وَالْـمُبْتَدِعَةَ وَالْـمُشْرِكِيْنَ. اَللّٰهُمَّ شَتِّتْ شَـمْلَهُمْ. اَللّٰهْمَّ مَزِّقْ جَـمْعَهُمْ. اَللّٰهُمَّ دَمِّرْ دِيَارَهُمْ. وَاخْذُلْ مَنْ خَذَلَ الْـمُسْلِمِيْنَ وَاخْذُلْ مَنْ خَذَلَ دِيْنَ سَيِّدِنَا حَبِيْبِنَا صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ

“আল্লাহুম্মা আহলিকিল কাফারতা ওয়াল ফাসাক্বতা ওয়াল ফাযারতা ওয়াল মুবতাদি‘আতা ওয়াল মুশরিকীন। আল্লাহুম্মা শাত্তিত শামলাহুম। আল্লাহুম্মা মাযযিক্ব যাম‘আহুম। আল্লাহুম্মা দাম্মির দিয়ারাহুম। ওয়াখজুল মান খ্বজালাল মুসলিমীনা ওয়াখজুল মান খ্বজালা দীনা সাইয়্যিদিনা হাবীবিনা ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম।”

অর্থ: “আয় মহান আল্লাহ পাক! আপনি কাফির, ফাসিক-ফুজ্জার, বিদয়াতী এবং মুশরিকদের ধ্বংস করুন। আয় মহান আল্লাহ পাক! তাদের ঐক্যতা ভেঙ্গে দিন। আয় মহান আল্লাহ পাক! তাদের সম্মিলিত অপশক্তি নিশ্চিহ্ন করে দিন। আয় মহান আল্লাহ পাক! তাদের ঘর-বাড়িগুলো গুঁড়িয়ে দিন। মুসলমান উনাদেরকে যারা অবহেলা করে তাদেরকে আপনি লাঞ্ছিত করুন। সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার শানের খিলাফকারীদের আপনি নিশ্চিহ্ন করুন।” আমীন!

এই দোয়া সকল মুসলমানদেরই উচিত মুখস্থ করা। এবং প্রতি নামাজ শেষে কাফির-মুশরিকদের বিরুদ্ধে অত্যন্ত শক্তভাবে বদদোয়া করা।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে