সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দু:খিত। ব্লগের উন্নয়নের কাজ চলছে। অতিশীঘ্রই আমরা নতুনভাবে ব্লগকে উপস্থাপন করবো। ইনশাআল্লাহ।

‘কিরণমালা’ দেখা নিয়ে সংঘর্ষ


ভারতীয় টিভি সিরিয়াল ‘কিরণমালা’ দেখা নিয়ে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার ধলবাজারে দুই পক্ষের সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ দেড় শতাধিক লোক আহত হয়েছে। সংঘর্ষে আহত ৫৭ জনকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত দফায় দফায় এ সংঘর্ষ চলে। এ সময় হবিগঞ্জ-লাখাই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।
পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বুধবার রাতে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার ধলবাজারে শাকির রেস্টুরেন্ট নামের একটি চায়ের দোকানে স্টার জলসায় ‘কিরণমালা’ দেখা নিয়ে ধল গ্রামের সানু মিয়ার মেয়ে রেবা ও হাফসার সঙ্গে একই গ্রামের শেফালী বেগমের কথা-কাটাকাটি হয়। বিষয়টি উভয় পক্ষ বাড়িতে জানালে আজ সকাল ছয়টার দিকে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। ওই সময় দুই পক্ষের লোকজন বল্লম, টেঁটা, লাঠিসোঁটা ও ইটপাটকেল ব্যবহার করে। এ সময় বেশ কয়েকটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও যানবাহন ভাঙচুর করা হয়। একপর্যায়ে হবিগঞ্জ-লাখাই সড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। খবর পেয়ে হবিগঞ্জ সদর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাঠিপেটা, নয় শতাধিক রাবার বুলেট এবং কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
আহত ব্যক্তিদের মধ্যে ৪৭ জনকে হবিগঞ্জ জেলা আধুনিক হাসপাতালে এবং রাবার বুলেট ও টেঁটাবিদ্ধ অবস্থায় ১০ জনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।
হবিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াসিনুল হক জানান, টিভিতে ‘কিরণমালা’ দেখা নিয়ে দুই নারীর কথা-কাটাকাটি থেকে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তবে কোনো পক্ষ থানায় অভিযোগ করেনি বলে জানিয়েছেন তিনি।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে