কি অদ্ভুদ দেশ ৪৩ বছর ধরে সে পরের অবেগ ধার করে কেঁদে থাকে !!!! তার নিজের আবেগ বলতে কি কিছুই নাই ????


দেশ প্রেম ঈমান উনার অঙ্গ ‘ ইহা পবিত্র হাদিস শরীফ উনার মধ্যে রয়েছে ইহা প্রত্যেক মুসলমান মনে প্রাণে বিশ্বাস করে থাকেন। ঠিক আছে,এখন আমার প্রশ্ন তাদের কাছে তারা যে গান গেয়ে দেশ প্রেম দেখাতে জড়ো হবে ২৬ শে মার্চে ,এতে কি তাদের দেশ প্রেম দেখানোর  দায়িত্ব শেষ হয়ে গেল ????  আর একটা প্রশ্ন  !! আমরা বাংলাদেশি ২৬ শে মার্চে বাংলাদেশের উপর নির্যাতন নিপীড়ন হয়েছে। দেশকে স্বাধীন করার জন্য লাখো মানুষ শহীদ হয়েছেন। তাই পরবর্তী প্রজন্ম হিসেবে আমাদের একটা দায়িত্ব রয়েছে,  তাহলে আমরা কি করতে পাড়ি??? আমাদের কি করণীয় ??? দলবদ্ধ হয়ে  জড়ো হয়ে গান গাইবে??? এখন কার গান গাইবে?? এক ভিনদেশী বেটার লেখা গান গাইবে??? সেতো বাংলাদেশীও নয় !! তার গানে এত দরদ এত মায়া !! কি অদ্ভুদ দেশ ৪৩ বছর ধরে সে পরের অবেগ ধার করে কেঁদে থাকে তার নিজের আবেগ বলতে কি কিছুই নাই ???? তাহলে নতুন প্রজন্ম কি এক ভিনদেশীর প্রশংসায় মত্ত থাকবে??? সে কি নিজের দেশের শহীদগণকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য ভিনদেশী লোকের কিছু ধারন করবে বা ভাড়া করবে??? এটা কি সাফল্য?? গলা ফাটিয়ে গাইলেই গর্বিত??? ইতিহাস হয়ে গেলো??? কার ইতিহাস রবিঠাকুরের ???

**************কার কাছে এই প্রশ্ন রাখবে জাতি আজ????*********

এখন একজন মুসলমান যদি ইন্তিকাল করেন তাহলে তার জন্য,তার রেখে যাওয়া ওয়ারিশগণ কি করবেন ?? পবিত্র কোরআন শরীফ হাদীস শরীফ উনার আলোকে দোয়া করবেন, সওয়াব রেসানী করবেন মৃত ব্যক্তির জন্য, তার জন্য দান করবেন মিলাদ শরীফ পাঠ করবেন, তার কবর জিয়ারত করবেন। আর ইহাই তার কবরে শান্তির কারণ হবে। প্রতি বছর এটাই করা শ্রেয় হবে উত্তম হবে কবরের ব্যক্তির নাজাতের কারণ হবে।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে