কুদরতী ফায়সালা হবে ইনশা আল্লাহ …


সর্বদাই অল্প সংখ্যক মুসলমান অধিক সংখ্যক কাফিরের উপর কামিয়াবী হাছিল করেছে ,বিজয় লাভ করেছে । যার নজীর অসংখ্য রয়েছে তার মধ্যে একটি হচ্ছে সম্মানিত বদরের জিহাদ -যেখানে সাহাবী উনারা সংখ্যায় ছিলেন ৩১৩-৩১৫ জন এবং উনাদের যুদ্ধের প্রস্তুতিও ছিলো না । আর কাফিরদের সংখ্যা ছিলো প্রায় ১০০০ !
মহান আল্লাহ পাক মুসলমান উনাদেরই বিজয়ী করলেন । যেহেতু উনারা ইস্তিক্বামত ছিলেন । উনারা বনী ইসরাইলের লোকদের মত বলেননি ” আপনি আর আপনার রব জিহাদ করুন ” নাঊযুবিল্লাহ্‌ ।
এটা মহান আল্লাহ পাক উনারই ওয়াদা যে ,যদি মুসলমানরা ইস্তিক্বামত থাকে আর তাক্বওয়া হাছিল করে তাহলে মহান আল্লাহ পাক তাদেরকে বিজয় দান করবেন ,কুদরতী সাহায্য করবেন । সুবহানাল্লাহ্‌ ।
এখন রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম সরিয়ে দেয়ার পেছনে রয়েছে মাত্র ৫ টা কাফের । এদেরকে দমানোর জন্য আমরা গুটিকয়েক মুসলমানই যথেষ্ট । অবশ্য সব মুসলমান এক্টু নড়াচড়া করলেই এরা গুষ্টিশুদ্ধ পানিতে গিয়ে পড়তো ,শুকনো জায়গা খুজার চান্স পেতো না কু্লাঙ্গারগুলো !
এখন যেহেতু বেশিরভাগ মুসলমানই গাফেল সেহেতু অল্প সংখ্যক মুসলমান উনারাই প্রতিবাদ করছেন । যারা প্রতিবাদ করছেন তারা তো কামিয়াবী হাছিল করবেন ইনশা আল্লাহ ,অবশ্যই তাদের প্রতিবাদের কারণে ‪#‎সংবিধানে_রাষ্ট্রধর্ম_ইসলামই_বহাল_থাকবে‬ ইনশা আল্লাহ্‌ । মহান আল্লাহ পাক অবশ্যই সাহায্য করবেন । শুধু্মাত্র তাদের জন্য আফসোস যারা ঈমান হেফাযত এর চেষ্টাটাও করলো না ।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+