সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দু:খিত। ব্লগের উন্নয়নের কাজ চলছে। অতিশীঘ্রই আমরা নতুনভাবে ব্লগকে উপস্থাপন করবো। ইনশাআল্লাহ।

কুফরীমূলক ইংরেজী শব্দের ব্যবহারে সতর্কতা


ইহুদী-নাছারাদের একটি সূক্ষ্ম ষড়যন্ত্র হচ্ছে তারা মুসলমানদের সংশ্লিষ্ট বিষয়ে এমন সব ইংরেজী শব্দ ব্যবহার করছে যা মুসলমানদের জন্য অসম্মানজনক ও কুফরীমূলক।

উদাহরণস্বরূপ আমরা দেখতে পাই যে, অনেকে ইংরেজীতে মসজিদ লিখতে গিয়ে ‘MOSQUE’ (মসক্) শব্দ ব্যবহার করে থাকে- এমনকি তারা দৈনন্দিন ব্যবহার্য শব্দ হিসেবেও সহজাতভাবে নিয়মিত MOSQUE শব্দটি ব্যবহার করে। কিন্তু ‘MOSQUE’ শব্দটির ইটিমোলজিকেল বা শাব্দিক উৎসগত অর্থ হচ্ছে- ‘House of Mosquito’ যা এসেছে ‘MOSQUITO’ বা মশা থেকে। শব্দগতভাবে এর অর্থ দাঁড়াচ্ছে ‘মশার ঘর’ যা মূলতঃ মসজিদকে হেয় প্রতিপন্ন করার এক দূরভীসন্ধি। তাই এই ব্যাপারে আমাদের সতর্ক থাকা জরুরী এবং ইংরেজীতে MOSQUE শব্দ ব্যবহার না করে আমরা যেন MASJID ব্যবহার করি।

আবার ইংরেজী বানানে অনেকে মক্কা শরীফকে MECCA লিখে থাকে অথচ MECCA’র শব্দগত অর্থ হচ্ছে Whisky House বা শরাবখানা যার অসতর্ক ব্যবহার অর্থগতভাবে চরম অবমাননাকর এবং কঠিন গুণাহর কারণ হবে। তাই আমাদের উচিত MECCA না লিখে MAKKAH লিখা। যাদের নামের শুরুতে মুহম্মদ রয়েছে তারা নিজের নাম লিখতে গিয়ে সংক্ষেপে Mohd লিখে থাকে। অথচ এই Mohd শব্দের অর্থ হচ্ছে- ‘A dog which has a big mouth’ অর্থাৎ এমন এক কুকুর যার মুখ হচ্ছে বড়। ইহুদী-নাছারারা অত্যন্ত সুকৌশলে সূক্ষ্মভাবে মুসলমানদের গুরুত্বপূর্ণ, মর্যাদাপূর্ণ ও সম্মানিত শব্দসমূহের ইংরেজী পরিভাষা বা Translate করার সময় ইচ্ছাকৃতভাবে এমন সব শব্দ ব্যবহার করছে যার শব্দের উৎসগত অর্থ মুসলমানদের জন্য অত্যন্ত অসম্মানজনক এবং অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তা কুফরীমূলক ও ঈমানহারা হওয়ার কারণ হতে পারে। তাই এ সকল ক্ষেত্রে পরিভাষাগত Translate না করে সরাসরি আরবী শব্দটাই ব্যবহার করা যেতে পারে।

আর বানানের ক্ষেত্রে অবশ্যই এমন শব্দ ব্যবহার করা যাবে না যার অর্থ অসম্মানজনক ও কুফরীমূলক। আর ভাষাকে সংক্ষিপ্ত, বিকৃত ও অস্পষ্টভাবে প্রকাশ করা সুন্নতের খিলাফ। আমরা এত কিছু লিখার বা বলা সময়, সুযোগ, শক্তি ও কাগজ-কালি পাই তাহলে কেন ইসলাম ও মুসলমানদের বিষয় ও শব্দগুলো স্পষ্ট ও পরিপূর্ণভাবে প্রকাশ করার প্রয়োজনীয় উপাদান ও সামর্থ্য আমাদের থাকবে না! প্রকৃতপক্ষে আমাদের অবজ্ঞা, অবহেলা, অলসতা ও অসচেতনতাই এজন্যে দায়ী। কাজেই মুসলমানদেরকে অবশ্যই ইহুদী-খ্রিস্টানদের এ ধরনের সকল প্রকার সূক্ষ্ম ষড়যন্ত্র থেকে সতর্ক হয়ে নিজেদের ঈমান আমলকে হিফাজত করা উচিত।

Views All Time
2
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

৭টি মন্তব্য

  1. ধন্যবাদ সতর্ককরে দেয়ার জন্য। এজাতীয় আরো সতর্কতামূলক পোস্ট চাই।

  2. উদীয়মান সূর্য উদীয়মান সূর্য says:

    Sun অনেক অনেক ধন্যবাদ Coffee

  3. মাসউদুর রহমান কনভার্টার says:

    এ ধরনের আরো কিছু সম্ভব হলে শেয়ার কইরেন।

  4. Muhammad Ameen Muhammad Ameen says:

    জানিয়ে দেয়ার জন্যে আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ।
    ভালো লাগলো… Coffee

  5. A.B.M.OBYDUR RAHMAN says:

    আস্ সালামুআলাইকুম.বলার ভাষা নাই, কি বলে শুকরিয়া করব? এইরকম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে আরো পোষ্ট চাই।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে