সাময়িক অসুবিধার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দু:খিত। ব্লগের উন্নয়নের কাজ চলছে। অতিশীঘ্রই আমরা নতুনভাবে ব্লগকে উপস্থাপন করবো। ইনশাআল্লাহ।

কুরবানীর চামড়া দেয়ার উত্তম স্থান হলো- ‘মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ মাদ্রাসা ও ইয়াতীমখানা’।


মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ করেন,

অর্থাৎ- “তোমরা নেকী ও পরহেযগারীর মধ্যে পরস্পর পরস্পরকে সাহায্য করো।”
ইসলামী শরীয়তের দৃষ্টিতে কুরবানীর পশুর চামড়ার বিধান হচ্ছে যদি কুরবানীদাতা চামড়াটি নিজে ব্যবহার করতে চায় তবে ব্যবহার করতে পারবে। আর যদি দান করতে চায় বা বিক্রি করে দেয় তবে তা গরিব, ইয়াতীম, মিসকীনদেরকে দিয়ে দিতে হবে।
অর্থাৎ যারা যাকাত, ফিতরা পাওয়ার উপযুক্ত তারাই কুরবানীর চামড়া বা তার মূল্য পাওয়ার হক্বদার।
তবে এক্ষেত্রে ইয়াতীম গরিব ত্বলিবুল ইলম বা মাদরাসার ছাত্ররা প্রাধান্য পাবে। তলিবুল ইলমদেরকে যাকাত, ফিতরা ও কুরবানীর চামড়া দেয়ার মধ্যে সবেচেয়ে বেশি ফযীলত।
তাই বলে যেকোনো গরিব, মিসকীন বা মাদরাসায় যাকাত, ফিতরা ও কুরবানীর চামড়া দেয়া জায়িয নেই। যেমন, যে সকল মাদরাসায় কুফরী আক্বীদা ও শরীয়তবিরোধী আমল শিক্ষা দেয়া হয় অর্থাৎ মীলাদ ক্বিয়াম করাকে যারা হারাম বলে, শবে বরাত পালন করাকে যারা বিদয়াত বলে, ফরয নামাযের পর মুনাজাত করাকে যারা বিদয়াত বলে, বর্তমান যামানায় ছবি তোলাকে যারা জায়িয বলে ও তোলে, বেপর্দা হয়, গণতন্ত্র, ভোট, নির্বাচন, হরতাল, লংমার্চ করে ও করাকে যারা জায়িয বলে, যারা ধর্মান্ধ সন্ত্রাসী তৈরি করে তাদেরকে বা তাদের মাদরাসায় যাকাত, ফিতরা ও কুরবানীর চামড়া দেয়া জায়িয হবে না। কারণ, তাদেরকে এগুলো দেয়ার অর্থই হচ্ছে হারাম ও শরীয়তবিরোধী কাজে বা ইসলামের ক্ষতি সাধনে সাহায্য করা।
অথচ মহান আল্লাহ পাক তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন,

অর্থাৎ- “তোমরা গুনাহ ও শত্রতার মধ্যে পরস্পর পরস্পরকে সাহায্য-সহযোগিতা করো না।”

তাই বলার অপেক্ষা রাখে না যে, কুরবানীর চামড়া দেয়ার সর্বোত্তম ও নিরাপদ স্থান হচ্ছে, রাজারবাগ দরবার শরীফস্থ ‘মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ মাদরাসা ও ইয়াতীমখানা’। কারণ, এখানে ছহীহ আক্বীদা ও সুন্নতের আমল শিক্ষা দেয়া হয়। অর্থাৎ এখানকার ছাত্র-ছাত্রীরা পরিপূর্ণ শরীয়ত ও সুন্নতের পাবন্দ। তারা রাজনীতি ও সন্ত্রাস থেকে সম্পূর্ণ মুক্ত। তাই এখানে কুরবানীর চামড়া দেয়ার অর্থ হচ্ছে নেক কাজ ও পরহেযগারীতে সাহায্য করা। যা প্রকৃত ‘ছদকায়ে জারিয়া’ও বটে।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

  1. ঠিক লিখছেন।তাই আপনাকে বেশুমার শুকরিয়া। Coffee Rose Moon

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে