কুল কায়িনাতের সকল মুসলমানদের উচিত- রাজারবাগ দরবার শরীফ উনার মাঝে অবস্থিত “আন্তর্জাতিক পবিত্র সুন্নত মুবারক প্রচার কেন্দ্রে” এসে মহাসম্মানিত সুন্নত সম্পর্কে জানা এবং তদানুযায়ী আমল করে ইহকালীন পরকালীন সর্বপ্রকার নিয়ামতে ধন্য হওয়া


যিনি খালিক্ব যিনি মালিক যিনি রব মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র সুন্নত মুবারক পালনের গুরুত্ব ও তাৎপর্য সম্পর্কে উনার মহাপবিত্র ও মহাসম্মানিত কালাম পাক উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন-
قُلْ إِنْ كُنْتُمْ تُحِبُّوْنَ اللهَ فَاتَّبِعُوْنِيْ يُحْبِبْكُمُ اللهَ وَيَغْفِرْ لَكُمْ ذُنُوْبَكُمْ وَاللهُ غَفُوْرٌ رَّحِيْمٌ
অর্থ: “হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি বলে দিন যদি তোমরা খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনাকে মুহব্বত করো বা খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার মুহব্বত হাছিল করতে চাও, তবে তোমরা আমার অনুসরণ করো। তাহলে খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি তোমাদেরকে মুহব্বত মুবারক করবেন এবং তোমাদের গুনাহখতা ক্ষমা করে দিবেন। আর খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি অত্যাধিক ক্ষমাশীল ও দয়ালু।” অর্থাৎ মহান আল্লাহ পাক তিনি তোমাদের প্রতি অত্যন্ত ক্ষমাশীল ও দয়ালু হবেন। সুবহানাল্লাহ! (পবিত্র সূরা আল ইমরান শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ৩১)
আর সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিইয়ীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ করেন-
مَنْ اَحَبَّ سُنَّتِيْ فَقَدْ أَحَبَّنِيْ وَمَنْ أَحَبَّنِيْ كَانَ مَعِيْ فِي الْـجَنَّةِ
অর্থ: “যে ব্যক্তি আমার পবিত্র সুন্নত মুবারক উনাকে মুহব্বত করলো, সে যেন আমাকেই মুহব্বত করলো আর যে ব্যক্তি আমাকে মুহব্বত করলো, সে আমার সাথে জান্নাতে থাকবে।” সুবহানাল্লাহ! (তিরমিযী শরীফ, মিশকাত শরীফ)
সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খাতামুন নাবিয়্যীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি আরও ইরশাদ করেন-
مَنْ حَفِظَ سُنَّتِىْ اَكْرَمَهُ اللهُ تَعَالٰى بِاَرْبَعِ خِصَالٍ. اَلْمُحَبَّةُ فِىْ قُلُوْبِ الْبَرَرَةِ وَالْـهِيْبَةُ فِىْ قُلُوْبِ الْفَجَرَةِ وَالسَّعَةُ فِى الرِّزْقِ وَالثِّقَةُ فِى الدِّيْنِ.
অর্থ: নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, যারা আমার মহাসম্মানিত সুন্নত মুবারক উনাকে হিফাযত করবে তথা সম্মানিত সুন্নত মুবারক উনার ইত্তিবা বা অনুসরণ করবে, মহান আল্লাহ পাক উনাদেরকে চারটি বিশেষ বৈশিষ্ট্য বা গুণ হাদিয়া মুবারক করে সম্মানিত করবেন। ১. নেককারদের অন্তরে মুহব্বত প্রদান করবেন ২. পাপিষ্ঠদের হৃদয়ে ভয়-ভীতি প্রদান করবেন ৩. রিযিকে প্রশস্ততা দান করবেন ৪. সম্মানিত দ্বীন-ইসলাম উনার উপর আস্থা বা আত্ববিশ্বাস পয়দা করে দেবেন। সুবহানাল্লাহ! (তাফসীরে হাক্কী ৩/৮)
কাফির-মুশরিক, বেদ্বীন, বদ্বদ্বীনদের কারণে মুসলমানরা আজ সুন্নত মুবারক ভুলে গেছে। সম্মানিত সুন্নত পালনের গুরুত্ব তাৎপর্য অনুধাবন করে যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, মুজাদ্দিদে আ’যম, মুর্শিদে আ’যম, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইস্ সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, আওলাদে রসূল, সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি পবিত্র রাজারবাগ দরবার শরীফ উনার মাঝে প্রতিষ্ঠা করেছেন “আন্তর্জাতিক পবিত্র সুন্নত মুবারক প্রচার কেন্দ্র”। সুবহানাল্লাহ!
তাছাড়া সুন্নত মুবারক জারী করার জন্য দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানেও সুন্নত প্রচারকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করছেন। সুবহানাল্লাহ!
পবিত্র সুন্নতী লিবাস (পোশাক), তৈজসপত্র ও সুন্নতী খাবার মুবারক জারী করেছেন।
সুন্নতী খাবার খেয়ে অনেকেই বিভিন্ন জটিল রোগ থেকে শিফা লাভ করছেন। সুবহানাল্লাহ!!
তাই সকলের উচিৎ হবে রাজারবাগ দরবার শরীফ এসে সুন্নত মুবারক সম্পর্কে জেনে, সেই অনুযায়ী সুন্নত পালন করে, দোজাহানে কামিয়াবী হাসিল করা।
খ¦ালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদেরকে মহাসম্মানিত সুন্নত মুবারক শরীফ সম্পর্কে জেনে সে অনুযায়ী আমল করার হাক্বীক্বী তাওফীক দান করুন। আমীন!

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে