“কেবলমাত্র যাকাতভিত্তিক অর্থনীতিই দারিদ্র্য বিমোচনে সক্ষম”


সম্মানিত কুরআন শরীফ ও সম্মানিত হাদীছ শরীফ অনুযায়ী সুদ হচ্ছে হারাম। হারাম থেকে কখনো হালাল বা ভালো কিছু বের হয় না। হারাম থেকে হারামই বের হয়।কথায় আছে “পাত্রে আছে যা, ঢালিলে পড়িবে তা”। পাত্রে ময়লা রেখে, ঢাললে মধু পড়বে- এরূপ চিন্তা করা যেমন বোকামি, তেমনি দারিদ্র্য নিরসনে যাকাতভিত্তিক অর্থনীতি চালু না করে সুদভিত্তিক অর্থনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালনা করাটাও বোকামি। কারণ মহান আল্লাহ পাক তিনি যে বিষয়টাকে হারাম করেছেন, ঐ বিষয়ের মধ্যে কোনোদিন ভালো কোনো কিছু আশা করা যায় না।
ড. ইউনূস সহ অন্যরা যারা ক্ষুদ্রঋণ দিচ্ছে তা হলো সুদভিত্তিক। যার কারণে মানুষ দারিদ্র্যসীমা পেরোতে পারছে না। বরং আরো দারিদ্র্য তাদেরকে গ্রাস করছে। কেননা সুদের পরিভাষিক অর্থ হলো- যুলুম ও শোষণ। তাই দারিদ্র্য থেকে বাঁচতে হলে যাকাতভিত্তিক অর্থনীতির কোনো বিকল্প নেই। এই বিষয়টি আমাদের দেশের সকল রাজনীতিবিদ তথা শাসকগোষ্ঠীককে বুঝতে হবে এবং অতিশীঘ্রই যাকাতভিত্তিক অর্থনীতি আমাদের বাংলাদেশে জারি করা উচিত…

Views All Time
1
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে