কোকাকোলা-পেপসিতে অ্যালকোহল



 

বিশ্বেজুড়ে তুমুল জনপ্রিয় কোমলপানীয় কোকাকোলা ও পেপসিতে অ্যালকোহল থাকার প্রমাণ পাওয়া গেছে। প্যারিসভিত্তিক ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কনজাম্পশন তাদের সাম্প্রতিক এক  গবেষণা প্রতিবেদনে এমন দাবি করেছে।

গত বুধবার ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইল ওই গবেষণা প্রতিবেদনের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে, বিশ্বে সর্বাধিক বিক্রিত কোমল পানীয় কোকাকোলা এবং পেপসিসহ  বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় অর্ধেকেরও বেশি কোলায় অ্যালকোহল রয়েছে। তবে পরিমাণটা সামান্য।

ফ্রান্সের ‘৬০ মিলিয়ন কনজিউমার’ সাময়িকীতে গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়েছে।

গবেষণায় দেখা গেছে,  প্রতি লিটার পানীয়তে অ্যালকোহলের পরিমাণ ১০ মিলিগ্রাম। শতকরা হিসাবে যা ০.০০১ শতাংশ।

উল্লেখ্য, কোমলপানীয়ের সস্তা সংস্করণের বাজারে শীর্ষস্থানীয় কোম্পানি কোকাকোলা এবং পেপসি তাদের পানীয়কে অ্যালকোহল মুক্ত বলে দাবি করে থাকে। কিন্তু নতুন এই গবেষণা প্রতিবেদনের কারণে কোক-পেপসিতে অ্যালকোহল না থাকার দাবি এখন বড় এক  চ্যালেঞ্জের মুখে পড়লো।

গবেষণায় এসব কোমল পানীয়তে অ্যালকোহলের মাত্রা খুবই সামান্য বলে প্রতীয়মান হলেও  লাখ লাখ মুসলমান ভোক্তা যারা প্রতিদিন কোকাকোলা বা পেপসির মতো কোমলপানীয় পান করে। এদুটি পানীয়তে অ্যালকোহলের উপস্থিতি এবার তাদের ভাবিয়ে তুলবে। ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের ধর্মানুভূতির কারণে কো-পেপসির বাজারটি  এখন  হুমকির মুখে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ইসলাম ধর্মে অ্যালোকহল পান নিষিদ্ধ হওয়ার কারণে মুসলিম বিশ্বে কোমলপানীয়ের বাজার কিছুটা হোঁচট খেলেও খেতে পারে।

সকল মুসলমানদের জন্য বিন্দু পরিমাণ অ্যালোকহল পান করা হারাম। আসুন আমরা সকলে এই সব কোমল পানীয় পরিত্যাগ করি।

সূত্র : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম     তাং – 28-06-2012

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+