কোকাকোলা ,কোমল পানীয় হারাম


রাজারবাগ দরবার শরীফ যে কথা ১ যুগ আগে বলে, অন্য ধর্মীয় দলগুলো তা ১ যুগ পরেও বলতে পারে না

অনলাইনে আহলে হক মিডিয়া সার্ভিস নামক একটি পোর্টাল চালায় দেওবন্দী-কওমী গোষ্ঠী। এই পোর্টালে তারা মানুষের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেয়। গত ৩রা অক্টেবর ২০১৬ তারিখে আরিফুর রহমান পরাগ নামক এক ব্যক্তি সেই কথিত আহলে হক মিডিয়া বরাবর প্রশ্ন করে-
“কোকাকোলা বা পেপসি খাওয়া হালাল না হারাম ?”

ঐ ব্যক্তির প্রশ্নের উত্তরে কওমী দেওবন্দী এক মুফতে ফতওয়া দেয়-
“আমরা যতটুকু জেনেছি , এসব কোল্ড ড্রিংকসে নাপাক দ্রব্য ব্যবহার করা হয় না, সোডাজাতীয় দ্রব্য ব্যবহার করা হয়, আর যদিও কোন নাপাক দ্রব্য ব্যবহার হয়ে থাকে, তাহলেও তা এমনভাবে রিফাইন হয়ে যায় এসবের কোন নামগন্ধও আর বাকি থাকে না, তাই এসব পণ্য ব্যবহারে শরয়ী কোন বাঁধা নেই। তবে এটি আমাদের অসম্পূর্ণ গবেষণা মন্তব্য।” (https://ahlehaqmedia.com/5572-2/)

ঐ দেওবন্দী-কওমী প্রতিষ্ঠান কোকাকোলা হালাল বলে ফতওয়া দিলো এবং আরো বললো- তাদের কাছে পুরো তথ্য নেই।

অথচ আজ থেকে ১৪ বছর আগে ২০০৪ সালে মাসিক আল বাইয়্যিনাত শরীফ উনার ১৩৬ থেকে তম সংখ্যা থেকে ১৬০ তম সংখ্যা পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে বিস্তারিত সাইন্টিফিক গবেষণার ভিত্তিতে প্রমাণ করা হয়েছিলো কোকোকোলা ও ঐ ধরনের সকল কোমল পানীয়তে সামান্য পরিমাণে হলেও এ্যালকোহল মিশ্রিত থাকে, তাই সেটা হারাম।
( কোকাকোলো নিয়ে পুরো গবেষণার পিডিএফ –
https://tinyurl.com/y7yqugx7)

তারমানে কি দাড়ালো ?
রাজারবাগ দরবার শরীফ যেটা ১ যুগ আগে জানে অন্যান্য ধর্মীয় দলগুলো তা ১ যুগ পরও জানতে পারে না

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে