কোলকাতার ম্লেচ্ছ দাদাদের কিপটেমি নিয়ে ফানপোস্ট(কপিপেস্ট কিন্তু)


সংবিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ: গো চনা হইতে সাবধান (মালুদের খাবারে)

বেশি হাসলে দিল মরে যায়।

 

১। সেই কাজিন কোলকাতায় গিয়ে হোটেলে মালপত্র রেখে বন্ধুর সাথে তার এক মামার বাড়ী গেছে দেখা করতে তবে মনে প্ল্যান ছিলো ঐ বাড়ীতে ওঠার , তো মামা বলে উঠলেন ” এইবারতো হোটেলে উঠলে পরেরবার আমাদের এখানে উঠো কিন্তু

২। সেই কাজিনই খাইতে গেছে হোটেলে , তো ওরা নাকি সালাদ ফ্রি দেয় না । অর্ডার দেয়ার পর যা আসলো তা হইলো একটা মরিচ, এক স্লাইস পেয়াজ আর এক টুকরা গাজর …………………বিল ??? ৬৫ রুপি ।

৩। এক বন্ধু গেছে কোলকাতায় তার বন্ধুর সাথে তার রিলেটিভের বাড়ীতে। তাদের দুপুরের খাবার দাওয়াত দেয়া হইছে এই বলে ” দুপুরে
চলে এসো কুচো চিংড়ি দিয়ে লাউয়ের ডগা হবে আজকে , যা হবে না মাইরি

৪। আমার এক ম্যানেজার ছিল কোলকাতার । ও জন্ম থেকেই লন্ডন থাকে । তো ও নাকি একবার কোলকাতা গেছে বেড়াইতে , গিয়া দেখে ওর কাজিন মাছ কিনে এইভাবে ” দাদা দুশ গ্রাম মাছ দিনতো বাড়ীতে আজ মেহমান এসেছে

৫। কোলকাতায় নাকি দুশ গ্রাম মিস্টির প্যাকেট পাওয়া যায়।

৬। আমার বাপের কাছ থেকে শোনা ………গ্রামের কোন লোক নাকি কোলকাতায় ব্যবসা করে । বাপ গেছিলো কোলকাতয় বাড়ইতে , তো একদিন সকালে ঐ লোক তার দোকান খুলতাছে , বাপে তারে জিগাইছিলো নাস্তা করছে নাকি ??? লোকের উত্তর ” শাতার উঠাচ্ছি দাদা , হ্যা জুস খেয়ে নিয়েছি

৭। বাপের কাছ থেকে শোনা দাদা দুটো ডিম রেধেছিলুম দুজনে যা খেলুম না

৮। বাপের কাছে শোনা….. ”দাদা ছোন্দেবেলায় এসেছেন তাই আদ্দেক মিষ্টি দিলুম পোরোটাই শেছকরবেন কিন্তু আর আপনি তো মিষ্টি পছন্দ করেন তাই চায়ে আদ্দেক চামচ চিনি দিয়েছি

৯। তাদের বিখ্যাত উক্তি “দাদা খেয়ে এসেছেন নাকি গিয়ে খাবেন!!!!!”

১০। এক বন্ধুর সাথে আরেক বন্ধুর দেখা।একজন অপরজনকে জিজ্ঞাসা করলো ,দুপুরে কি খেয়েছো?অপর বন্ধুর উওর , বাবা বাজার থেকে ৫০০গ্রাম গোশত এনেছিলু।তার থেকে মা আদ্দেক রান্না করলো বাকি আদ্দেক ফ্রীজে তুলে রাখলো।দিদি এসেছিলো জামাইবাবু আর বাচ্ছাদের নিয়ে।আমরা সবাই গোশত দিয়ে দুপুরে ভাত খেলুম।বাবা বলায় মা পাশের বাসার রহমান সাহেবকেও কিছুটা দিয়ে এসেছে ।মা আবার বাটিতে করে রাতের জন্য একটু তুলে রাখলো ।যা মজা করে সবাই মিলে গোশত খেলুম না!!!

১১।রাজের ছোট বোন রাখী এসে কুশল বিনিময় করে বলল, আপনার গল্প অনেক শুনেছিলুম দাদার কাছে।কি যে ভাললাগছেনা আপনাকে আমাদের অতিথি করে পেয়ে।চা আর ডিম দিলুম ।একটু পর ভাত খাবেনতো তাই আদ্দেক দিলুম পুরোটা খাবেন কিন্তু দাদা।

Views All Time
1
Views Today
3
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

৪৩টি মন্তব্য

  1. ***এক মুঠো মুড়ি আর অর্ধেক কাপ চা দিয়ে বলে, দাদা সবটুকু খেয়ে নিবেন কিন্তু।

  2. নূরুল হুদা (শান্ত)নূরুল হুদা says:

    হে হে হে হে হাসি পাচ্ছে, থামছেই না

  3. এরা যে এত কৃপন তা এখন জানতে পারলাম।শুকরিয়া আপনাকে। Present

  4. হা হা হা। ধন্যবাদ , ফানপোস্ট টার জন্য Island

  5. হা হা হা নয়। স্মাইল।
    হা হা হা করে গাল ভরে হাসা কি যায়েজ?

  6. হা হা হা বড্ড হাসি পেলুম । একটু হেসে নিলুম বাকিটা পরে হাসবো!

  7. Pizza >>> আদ্দেকটা দিলুম..পুরোটাই খেয়ে নিবেন কিন্তু…

  8. সত্যকথনসত্যকথন says:

    ভাই খেয়ে এসেছেন না গিয়ে খাবেন!

  9. অসিম দা, আধা লোটা পানিতে খুব মজা করে চান করেছো, তাই না? আগামী সপ্তাহের শনিবারে লোটার নিচনে একটু পানি ছিল যা মজা করে মাথা ধুয়েছিলুম তা দিয়ে গোসলের কাজও সেরে গিয়েছে। খুবই ফুরফুরা মনে হচ্ছে, ফের মনে কচ্চি আগামী মাসে অর্ধেক লোটা দিয়ে কাপড় ধোয়ার সাথে পুরো চানটি সেরে নেবো। ঠিক বলিনি লতা?

  10. ১০ নাম্বার টা পড়ে … (মুচকি) হাসতে হাসতে কুটি কুটি হয়ে গেলুম।
    এরকম আরো পোস্ট চাই প্লিজ Announce

  11. এক ইন্ডিয়ান মাল’উন আসিকদের বাসায় প্রায় আসতো। যখন আসিক তার বাবার কথা মত ইন্ডিয়াতে বেড়াতে জায় ঐ মাল’উনদের বাসায়। জাওয়ার সাথে সাথে মাল’উনটা বলে উঠে হোটেল থেকে সরাসরি এসেছ না ঠিক করা লাগবে? আসিক এর হাতে ১৬ কেজি মিষ্টি ছিল। পরিস্থিতি বুঝে দুমরে মুচরে যাওয়া এক কেজি প্যাকেট ধরিয়ে দিয়ে বলে বাকি গুলি আরো অন্য জায়গায় দিতে হবে। হোটেলে উঠে আসিক বাবাকে ফোন দিয়ে বলে পুরা ঘটনাটি। এই তোমার চামার মাল’উন এর কারবার, তাই যে কয়েকদিন বেড়াবো এই মিষ্টি আমিই খাবো+বয়-বেয়ারদের দিব।

  12. আরেকটা ঘটনা: এক কিপটে মাল’উন ইন্ডিয়ান এর ঘটনা। তার বাড়িতে বেড়াতে এসে বাংলাদেশি হতবাক। ২ ঘন্টা আলোচনার পর বলে আজ চিনি তো নেই আরেক দিন আসলে চা না খাইয়ে যেতেইইইই দিবো না।

  13. সত্যকথনসত্যকথন says:

    সমস্যা হইলো এই চামারগুলা বাংলাদেশে আসলে চুশীলগুলা হুমড়ি খাইয়া পড়ে। দাদা দাদা করতে করতে মুখে ফেনা তুলে দেয়। ভাল হইছে আশিক মালুর বাড়িতে থাকে নাই। ৫০০ গ্রাম গোচনা দিয়ে ৫০ গ্রাম পাঁঠার গোশত রান্না করে খাওয়াত।

  14. সত্যকথনসত্যকথন says:

    একখান আন্ডার ছবি দিলুম। মালুরা মনিটর ভেঙে খেয়ে নিস।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে