গভীর চিন্তায় সকল সৃষ্টির অলৌকিকত্ব পরিষ্কার


অন্তরের বাণী যা রক্ত দিয়া লেখা, সেই কথাগুলি কালির রং রূপ নিলে মানুষ নানা নাম দেয়। কবিতা, প্রবন্ধ, উপদেশবাণী, প্রেম পত্র ইত্যাদি ইত্যাদি। সেই লেখা-লেখিত আমার সরাসরি শিক্ষক হলেন- আমার প্রাণপ্রিয় মুজাদ্দিদগণের শ্রেষ্ঠ মুজাদ্দিদ রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি। একালে, সেকালে এবং সর্বকালে আমি উনার কৃত গোলাম।
মূল প্রসঙ্গে আসা যাক। মানুষ যা বুঝে না, তার নামকরণ করেছে অলৌকিক। মানুষ সীমিত জ্ঞানের প্রাণী তার জন্য পার্থিব সমস্ত বিষয় ও বস্তুকে অলৌকিক আখ্যা দিয়া থাকে। মহান আল্লাহ প্রদত্ত প্রতিও বিষয় ও বস্তুই অলৌকিক। মহান আল্লাহ পাক তিনি প্রয়োজন ছাড়া কিছুই তৈরি করেননি; বরং উনার প্রিয় বান্দাদের প্রয়োজনেই সকল সৃষ্টি। প্রতিটি জিনিস ও বস্তু মানুষের কাছে অলৌকিক। একটি গাছ ছোট একটি বীজ থেকে একটি বৃহদাকার গাছে সৃষ্টি হয়। এই প্রক্রিয়াটি চোখের সামনে অহরহ হয় বলে মানুষ গাছ নিয়া ফিকির করে না। সুতরাং গাছের অলৌকিকত্বও বুঝে না। একটু চোখ খুলে দেখুন মহান আল্লাহ পাক উনার সৃষ্ট সব কিছু কত বড় অলৌকিক।

Views All Time
1
Views Today
8
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে