গরুর গোশত খাওয়া নিয়ে মুনাফিকদের বক্তব্য- সম্মানিত দ্বীন ইসলামবিরোধী ও কুফরী


সম্মানিত মুসলমান উনাদের জন্য সম্মানিত দ্বীন ইসলাম উনার বিরোধী কোনো বক্তব্য, মন্তব্য, ব্যাখ্যা, বিশ্লেষণ, লিখনী গ্রহণযোগ্য ও অনুসরণযোগ্য নয়।
মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ মুবারক করেন-
وَمَنْ يَّبْتَغِ غَيْرَ الْاِسْلَامِ دِيْنًا فَلَنْ يُّقْبَلَ مِنْهُ وَهُوَ فِى الْاٰخِرَةِ مِنَ الْخٰسِرِيْنَ
অর্থ: “যে ব্যক্তি সম্মানিত দ্বীন ইসলাম ব্যতীত অন্য কোনো ধর্মের নিয়ম-নীতি তালাশ করে বা গ্রহণ করে তার থেকে তা কখনোই গ্রহণ করা হবে না। এবং সে পরকালে ক্ষতিগ্রস্তদের অর্থাৎ জাহান্নামীদের অন্তর্ভুক্ত হবে।
পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে-
عَنْ حَضْرَتْ عَمْرِو بْنِ شُعَيْبٍ رَحْمَةُ اللهِ عَلَيْهِ عَنْ اَبِيْهِ عَنْ جَدِّهٖ عَنِ النَّبِىِّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ لَيْسَ مِنَّا مَنْ تَشَبَّهَ بِغَيْرِنَا.
অর্থ: “হযরত আমর ইবনে শুয়াইব রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি উনার পিতা থেকে এবং উনার পিতা উনার দাদা ছাহাবী রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে বর্ণনা করেন যে, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, ঐ ব্যক্তি আমাদের অর্থাৎ মুসলমানের অন্তর্ভুক্ত নয়, যে সম্মানিত মুসলমান বা সম্মানিত দ্বীন ইসলাম ব্যতীত বিধর্মী-বিজাতীয়দের অনুসরণ অনুকরণ করে।” (মিশকাত শরীফ)
কাজেই, সম্মানিত মুসলমান উনাদের জন্য একমাত্র অনুসরণীয়-অনুকরণীয় হচ্ছেন মহান আল্লাহ পাক উনার আদেশ মুবারক এবং মহান আল্লাহ পাক উনার রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার আদেশ ও আদর্শ মুবারক অর্থাৎ পবিত্র কুরআন শরীফ এবং পবিত্র সুন্নাহ শরীফ।
মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার কালাম পাক পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন-
كُلُوْا مِمَّا رَزَقَكُمُ اللَّـهُ وَلَا تَتَّبِعُوْا خُطُوَاتِ الشَّيْطَانِ إِنَّهٗ لَكُمْ عَدُوٌّ مُّبِيْنٌ. ثَمَانِيَةَ أَزْوَاجٍ مِّنَ الضَّأْنِ اثْنَيْنِ وَمِنَ الْمَعْزِ اثْنَيْنِ… وَمِنَ الْإِبِلِ اثْنَيْنِ وَمِنَ الْبَقَرِ اثْنَيْنِ.
অর্থ: “মহান আল্লাহ পাক তিনি যে রিযিক তোমাদেরকে দিয়েছেন তা তোমরা ভক্ষণ করো। আর শয়তানের পদাঙ্ক অনুসরণ করোনা। নিশ্চয়ই সে তোমাদের প্রকাশ্য শত্রু। উহা আটটি (পশু)। ছাগল হতে দুটি (পুরুষ ও স্ত্রী), মেষ হতে দুটি, উট হতে দুটি এবং গরু হতে দুটি।” (পবিত্র সূরা আনয়াম শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ- ১৪২, ১৪৩, ১৪৪)
উপরোক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ উনার মধ্যে মহান আল্লাহ পাক তিনি গরুর গোশত খাওয়ার জন্য আদেশ মুবারক করেছেন।
পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে, “মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি মদীনা শরীফে উপস্থিত হয়ে গরু যবেহ করেছিলেন এবং ঈদুল আযহার দিনে গরু কুরবানী করেছিলেন।”
যেমন এ প্রসঙ্গে ছহীহ বুখারী শরীফ উনার মধ্যে বর্ণিত রয়েছে-
كتاب الاضاحى، باب اضحية للمسافر والنساء
ضَحٰى رَسُوْلُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ اَزْوَاجِه بِالْبَقَرِ
অর্থ: “নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি হযরত উম্মুল মু’মিনীন আলাইহিন্নাস সালাম উনাদের পক্ষ থেকে গরু কুরবানী করেছেন।”
ছহীহ মুসলিম শরীফ উনার মধ্যে রয়েছে-

كتاب الزكوة باب اباحة الهدية للنبى صلى الله عليه وسلم
عَنْ حَضْرَتْ اُمِّ الْـمُؤْمِنِيْنَ عَائِشَةَ عَلَيْهَا السَّلَامُ قَالَتْ اُتِىَ النَّبِىُّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بِلَحْمِ بَقَرٍ فَقِيْلَ هٰذَا مَا تُصَدَّقُ بِه عَلٰى بَرِيْرَةَ فَقَالَ هُوَ لَهَا صَدَقَةٌ وَلَنَا هَدِيَّةٌ.
অর্থ: “উম্মুল মু’মিনীন হযরত আছ ছালিছাহ আলাইহাস সালাম উনার থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার নিকট গরুর গোশত আনয়ন করা হয়েছিলো। এতে বলা হয়েছিলো, এটা বারীরা নাম্নী বাঁদীকে ছদকা দেয়া হয়েছে। তা শুনে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি বলেছিলেন, সেটা উনার জন্য ছদকা আর আমাদের জন্য হাদিয়া।”
উক্ত পবিত্র আয়াত শরীফ এবং পবিত্র হাদীছ শরীফ উনাদের বর্ণনা থেকে প্রতিভাত হয় যে, স্বয়ং মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি গরু কুরবানী করেছেন এবং গরুর গোশত খেয়েছেন।
অতএব, পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের খিলাফ কোনো আদেশ-নিষেধ মান্য করা বা কোনো আমল অনুসরণ করা সম্পূর্ণরূপে হারাম। পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক হয়েছে-
لَاطَاعَةَ لِـمَخْلُوْقٍ بِمَعْصِيَةِ الْخَالِقِ.
অর্থ: “মহান আল্লাহ পাক উনার নাফরমানী করে কোন সৃষ্টির অনুসরণ করা জায়িয নেই।”
অতএব, গরুর গোশত খাওয়ার ব্যাপারে নিরুৎসাহিত করার ক্ষেত্রে মুনাফিকদের ব্যাখ্যা, বিশ্লেষণ, বিবৃতি সরাসরি যিনি খ¦লিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার আদেশ মুবারক উনার বিরোধী হওয়ার কারণে প্রকাশ্য কুফরী এবং কাফির ও জাহান্নামী হওয়ার কারণ।

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে