গান-বাজনা করা হারাম ও কবীরা গুনাহের অন্তর্ভক্ত ।


ইসলামী শরীয়তের দৃষ্টিতে গান-বাজনা করা হারাম ও কবীরা গুনাহের অন্তর্ভক্ত ।

নবী তত্ত্ব, মুর্শীদি, জারী, কাওয়ালী, পল্লীগীতি, ভাওয়ালী, ভক্তিমূলক ইত্যাদি যে কোন প্রকার গানেই হোক সব ধরনের গান পাঠ করা ও শোনা হারাম। তবে বাজনা বা বাদ্য-যন্ত্র ব্যতীত হামদ শরীফ , না’ত শরীফ, কাসীদা শরীফ, ইত্যাদি পাঠ করা ও শোনা জায়েয রয়েছে।
গান-বাজনা হারাম হওয়া সম্পর্কিত আয়াত শরীফখানা হচ্ছে সূরা নজম-এর ৬১নং আয়াত শরীফ, মহান আল্লাহ পাক তিনি ইরশাদ করেন,
أَفَمِنْ هَذَا الْحَدِيثِ تَعْجَبُونَ- وَتَضْحَكُونَ وَلَا تَبْكُونَ- وَأَنتُمْ سَامِدُونَ
অর্থ: “তোমরা কি এ কথার (কুরআন শরীফ-এর) উপর আশ্চর্য্যান্বিত হচ্ছো ও হাস্য করছো এবং ক্রন্দন করছো না, অথচ তোমরা সঙ্গীত বা গান-বাজনা করছো?”
এ আয়াত শরীফখানা নাযিল হওয়ার কারণ সম্পর্কে তাফসীরে ইবনে জারীর, ২৭ খণ্ড, ৪৩/৪৪ পৃষ্ঠায় উল্লেখ আছে যে,
عن حضرت قتادة رضى الله تعالى عنه عن حضرت عكرمة رضى الله تعالى عنه عن حضرت ابن عباس رضى الله تعالى عنه قوله سامدون قال هو الغناء كانوا اذا سمعوا القران بغنوا و لعبوا وهى لغة اهل اليمن
অর্থ: “হযরত কাতাদা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু তিনি হযরত ইকরামা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে, তিনি হযরত ইবনে আব্বাছ রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু উনার থেকে রেওয়ায়েত করেন, মহান আল্লাহ পাক উনার কালাম سامدون ‘সামিদুন’ (সামুদ ধাতু হতে উৎপন্ন হয়েছে)। এর অর্থ সঙ্গীত বা গান-বাজনা, যখন কাফিরেরা কুরআন শরীফ শ্রবণ করত, সঙ্গীত বা গান-বাজনা করত ও ক্রীড়া কৌতুকে লিপ্ত হত। অতএব, এ আয়াত শরীফ দ্বারা প্রমাণিত হলো যে, সঙ্গীত বা গান-বাজনা হচ্ছে কাফিরদের খাছ আমল। যা ইসলামী শরীয়তে সম্পূর্ণ হারাম।
“গান-বাজনা” ও “বাদ্য-যন্ত্র” হারাম হওয়া সম্পর্কে অসংখ্য হাদীছ শরীফও বর্ণিত রয়েছে, যেমন সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, খতামুন্নাবিয়্যীন, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ করেন,
استماع الملاهى معصية جلوس عليها فسق وتلذذ بها من الكفر
অর্থ: “গান শোনা গুণাহের কাজ, গানের মজলিসে বসা ফাসেকী এবং গানের স্বাদ গ্রহণ ও প্রশংসা করা কুফরী।”
অন্য হাদীছ শরীফে ইরশাদ হয়েছে,
الغناء ينبت النفاق فى القلب كما ينبت الماء الزرع
অর্থ: “পানি যেরূপ জমীনে ঘাস উৎপন্ন করে “গান-বাজনা” তদ্রুপ অন্তরে মুনাফেকী পয়দা করে।” (বায়হাক্বী ফী শুয়াবিল ঈমান)। যেখানে কুরআন শরীফ, হাদীছ শরীফ-এর কোথাও “গান-বাজনা” জায়েয বলা হয়নি।সেখানে কোন অবস্থাতেই মুসলমানদের গান বাজনা শুনা জায়েয হবেনা।

Ahmad Rahma Khan's photo.
Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে