গোপন ক্যামেরা আছে কিনা কিভাবে বুঝবেন?


হারাম থেকে হারামেরই জন্ম হয়। এক হারাম শত হারামের জন্ম দেয়।

হাদিছ শরীফে ইরশাদ হয়েছে, কিয়ামতের দিন ঐ ব্যক্তির কঠিন শাস্তি হবে, যে প্রাণীর ছবি আঁকে বা তোলে।(বুখারী শরীফ)

আপাত দৃষ্টিতে হারাম মদে কিছু উপকারিতা থাকলেও অপকারিতাই বেশি। তদ্রুপ হারাম ছবির মাঝে কেউ কেউ ভাল কিছু খুঁজে পেলেও অপকারিতার কোন হিসাব নেই। পারসোনাতে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি তার প্রকৃষ্ট উদাহরন। যদিও এই ধরনের ঘটনা অহরহ ঘটছে অনেকেরই দৃষ্টির আড়ালে।তাই নিরাপত্তার খাতিরে ছবি ব্যতিত শরিয়ত সম্মত ফিঙ্গারপ্রিন্ট প্রদ্ধতি এখন সময়ের দাবি।

সকলের সচেতনতার জন্য কিছু তথ্য শেয়ার করছি, যদি এই তথ্যে কোন ভুল থাকে দয়া করে জানাবেন (বিশেষ করে কম্পিউটার সায়েন্সের বা ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স ইন্জিনিয়ার ভাইরা)

কিভাবে বুঝবেন গোপন ক্যামেরা আছে কিনা?

খুব সহজে নির্নয় করা যায় রুমে গোপন ক্যামেরার অস্তিত্ব আছে কিনা। এরজন্য আপনার লাগবে একটা মোবাইল ফোন (সিম এক্টিভ করা) যেখানে থেকে কল করা যায়।
এবার ট্রায়াল রুমে (যেখানে কাপড় পাল্টায়) ঢুকে কল দেয়ার চেষ্টা করুন আপনার মোবাইল থেকে যে কাউকে। যদি কল করা যায় ও নেটওয়ার্ক থাকে- তাহলে গোপন ক্যামেরা নাই ঐখানে। আর যদি কল করা না যায় ও নেটওয়ার্ক হঠাৎ করে ডাউন হয়ে যায়- তাহলে অবধারিত ভাবে বুঝবেন সেখানে গোপন ক্যামেরা আছে।

কেন এমনটা হয়?
খুব সোজা। গোপন ক্যামেরার সাথে থাকে ফাইবার অপটিক্যাল ক্যাবল। সিগনাল ট্রান্সফার করার সময় এর ইন্টারফিয়ারেন্স হতে থাকে। যার জন্য মোবাইল নেটওয়ার্ক ঐখানে কাজ করে না।

এতো গেলো একটা ব্যাপার। এবার আরেকটা বিষয়।

শপিং মলের ড্রেসিং রুমে যে মিরর দিয়ে দেখছেন সেটা আসল আয়না তো? অন্যপাশে থেকে কেউ আপনাকে দেখছেনা বা ভিডিও করছেনা তো??
আসল আয়নার মাঝে এখন যুক্ত হয়েছে নকল আয়না, যাকে বলা হয় দ্বিমুখী আয়না। এই আয়নায় আপনি আপনার চেহারা দেখতে পারবেন, কিন্তু ভুলেও বুঝতে পারবেন না যে অন্যপাশে একজন আপনাকে দেখছে!!

জ্বী এখন এইভাবেও চলছে প্রতারনা ও ভিডিও করার ফাঁদ, যা গোপন ক্যামেরার মতই সাংঘাতিক!!

সহজ একটা পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়ে নিন আপনার সামনের আয়না আসল নাকি নকল।

আপনার আঙ্গুল আয়নার উপর রাখুন। যদি আপনার আঙ্গুলের মাথা প্রতিবিম্ব আঙ্গুলের মাথার সাথে না লাগে (মাঝে ফাঁকা থাকে) তাহলে আয়না আসল।
আর যদি আঙ্গুলের মাথা প্রতিবিম্বের মাথার সাথে লেগে যায়, তার মানে আয়না নকল!! এটা আসল আয়না না, একটা দ্বিমুখী আয়না- যার অন্যপাশে থেকে আপনাকে দেখা যাবে, কিন্তু আপনি তাকে দেখতে পাবেন না। মানে অন্যপাশে থেকে কেউ আপনাকে দেখছে বা ভিডিও করছে!!

কিভাবে?

কারন আসল আয়নার সিলভার প্রলেপ থাকে আয়নার পিছনে, যার জন্য আপনার আঙ্গুল ও প্রতিবিম্বের মাঝে ফাঁকা থাকবে আয়নার পুরুত্বের জন্য। আর নকল আয়নার (দ্বিমুখী) সিলভার প্রলেপ থাকে আয়নার সামনে, যার জন্য আপনার আঙ্গুলের ছাপ আপনার আঙ্গুলের প্রতিবিম্বের সাথে লেগে যাবে (কারন মাঝে কোনো বাধা নেই)।

 

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+