চলুন নেককাজেই বেশি মনোযোগী হই!


কোনো ব্যক্তি কোনো ভালো কাজ/কারো জন্য ভালো কাজ করলো সে যেন তার নিজের জন্যই করলো। আর কারো জন্য /কোনো বদ কাজ বা খারাপ কাজ করলো সেটাও তার নিজের জন্যই করলো! অর্থাৎ সে তার নিজের আমলনামাকেই ক্ষতিগ্রস্ত করলো।
আপাতদৃষ্টিতে কারো ক্ষতি করাটা নিজের জন্য খারাপ না মনে হলেও এর পরিণাম অবশ্যই তাকে ভোগ করতেই হবে অদূর ভবিষ্যৎ-এ এবং নিশ্চিতভাবে!
একইভাবে যেকোনো বদ আমল সেটা হতে পারে অনেক তুচ্ছ,হয়তো সে বদকাজটার বদপ্রভাব তাৎক্ষণিকভাবে পরিলক্ষিত হয় না।কিন্তু এটার রিপোর্টার কিন্তু ঠিকই রিপোর্ট করে রাখে!
সেদিন সবাইই আমলনামা দেখে বলবে,”এ কেমন আমলনামা!কোনো কিছুই তো বাদ দেয়া হয় নি।”
তাই নিজের স্বার্থেই নিজ তাগিদে নেক আমলের দিকে ঝুঁকা ছাড়া আর কোনো উপায় নাই।
এজন্য সবসময়ই চেষ্টা করা উচিত,ছোটখাটো আমলকে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য না করে সেদিকেই বেশি গুরুত্ব দেয়া।
ছোট ছোট গুনাহ বলতে মানুষ যা বুঝে তা যতভাবে সম্ভব এভয়েড করা।যদিও ছোট গুনাহ বা বড় গুনাহ বলতে কোনো বিষয় নাই!
আর ছোট ছোট যে আমল আছে সেগুলো সাধ্যাতীত আমলে বাস্তবায়ন করা।এগুলোই পরবর্তীতে যে পাহাড়সম হবে না তা কে নিশ্চিত করবে!!!
আর আল্লাহ পাক তো কুদরতওয়ালা,দয়াবান।তিনি বান্দার নেক আমলগুলোকে লালন করেন,বড় করে দেন,বৃদ্ধি করে দেন অত্যন্ত যত্ন সহকারে দ্বিগুন-বহুগুণে !সুবহানাল্লাহ!

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে