ছবি তোলা, আঁকা, রাখা কাট্টা হারাম ও কুফরী এবং জাহান্নামী হওয়ার কারণ


অত্যন্ত দুঃখজনক বিষয় যে, আমাদের দেশে ৯৭% মুসলমান থাকা সত্ত্বেও আমাদের দেশের ছবি তোলা হয়ে থাকে। অথচ যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, اطيع الله واطيع الرسول واولى الامرمنكم. অর্থাৎ “তোমরা যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনাকে এবং উনার হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে অর্থাৎ উনাদেরকে অনুসরণ কর এবং তোমাদের মধ্যে যাঁরা উলিল আমর রয়েছেন উনাদেরকে অনুসরণ-অনুকরণ কর।” তাহলে এখানে বুঝা যায় যে, যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনাকে এবং উনার হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে এবং উলিল আমরগণ উনাদেরকে অনুসরণ করতে বলেছেন। যেহেতু যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার আদেশ পালন করা ফরয। সেহেতু যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার এবং উনার হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার ও উলিল আমরগণ উনাদেরকে অনুসরণ-অনুকরণ করাও ফরয। এখন যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার হাবীব সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন- كل مصور فى النار. অর্থাৎ “যারা ছবি তোলে বা তোলায়, আঁকে, রাখে তারা প্রত্যেকেই জাহান্নামী।” এখন যারা ছবি তোলে বা তোলায়, তুলছে বা তুলবে তাদের জন্য জাহান্নাম ওয়াজিব করা হবে এবং জান্নাত হারাম করা হবে। নাযুবিল্লাহ! কাজেই সকল মুসলমানের জন্য দায়িত্ব কর্তব্য হচ্ছে- ছবি থেকে বিরত থাকা এবং প্রত্যেককে ছবি থেকে বিরত থাকতে বলা এবং সরকারের দায়িত্ব কর্তব্য হলো ছবি তোলা বন্ধ করা এবং ফিঙ্গার প্রিন্ট চালু করা। যিনি খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদেরকে ছবি তোলা থেকে বিরত থাকার তাওফীক দান করেন। (আমীন)

Views All Time
1
Views Today
2
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে