সুনামিতে মানসিক বিকারগ্রস্ত জাপানে ভূতের ভয়ে ফুকুশিমায় নির্মাণ কাজ বন্ধ!


জাপানে শিগগিরই স্মরণকালের ইতিহাসে ভয়াবহ গযব ভূমিকম্প এবং সুনামির ধ্বংসলীলার এক বছর পূর্ণ হতে যাচ্ছে। আর এমন সময়, অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, ভূতের ভয়ে ফুকুশিমায় নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ। জাপানের ইশিনোমাকি শহরে ছড়িয়ে পড়েছে ভূতের ভয় স্থানীয় বাসিন্দাদের আতংক, গত বছরের ভয়াবহ ভূমিকম্প এবং সুনামির ছোবলে মারা যাওয়া মানুষের আত্মা এখন ওই অঞ্চলে ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং স্থানীয়দের ওপর নানাভাবে ভর করছে। এমন আতংক থেকে স্থানীয় একটি নির্মাণ প্রকল্পের কাজও স্থগিত করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

গত বছরের ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত একটি বাজার পুনর্নির্মাণ করা হচ্ছিল। কিন্তু মাঝপথেই সেই কাজ থামিয়ে দেয়া হয়,সেই অর্ধসমাপ্ত ভবনের দিকে দেখিয়ে ৬৪ বছর বয়সী সাতোশি আবে বলেন, ‘আমি শুনেছি, যারা এই ভবনটি পুনর্নির্মাণের কাজ করছিল তারা ভৌতিক প্রভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছে, আসলে অসংখ্য মানুষ মারা গিয়েছিল এখানে ফলে এখন এসব হচ্ছে।’ এক সময় জমজমাট মাছ ধরা ও কেনাবেচার বন্দর ছিল এই ইশিনোমাকি, কিন্তু গত বছরের সুনামি ওই অঞ্চলকে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়েছিল। সেখানে বসবাসকারী ১৯ হাজার মানুষের মধ্যে আধিকাংশই প্রাণ হারিয়েছিল ওই দুর্যোগে। সেই ধ্বংসযজ্ঞের ওপর আবারও গড়ে উঠছে বাজার-ঘাট, রাস্তা, বিদ্যালয়। ছেলেমেয়েরা আবারও স্কুল-কলেজে যাওয়া শুরু করেছে।

কিন্তু হারানো স্বজনদের আর কখনোই ফিরে পাওয়া সম্ভব নয়? তাদেরই স্মৃতি সারাক্ষণ ঘুরে ফিরছে দুর্যোগ থেকে বেঁচে যাওয়া মানুষের মনে। সেসব স্মৃতিই এখন ভূতের আসর হয়ে ছড়িয়ে পড়ছে বলে মনে করছেন সেই এলাকার বাসিন্দা শিনিচি সাসাকি। শিনিচি সাসাকি বলেন, ‘২০১১ সালের ১১ মার্চ বারবার আমাদের মনে ফিরে আসে? আপনি যদি এমন কাউকে চিনতেন যিনি এখানে হঠাৎ করেই মারা গেছেন, তাহলে মনে হবে যেন সেই ব্যক্তি এখনো এখানেই দাঁড়িয়ে আছে? আমি ভূতে বিশ্বাস করি না, তবুও আমি বুঝতে পারি যে কেন শহরজুড়ে এমন ভুতুড়ে শংকা ছড়িয়ে পড়েছে।’ বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, ভূতের এই ভয় শহরের ট্যাক্সিচালকদেরও পেয়ে বসেছে।

মূল খবর ডয়চে ভেলের।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+