সরকারের জন্য ফরয হচ্ছে- হারাম খেলা-ধুলায় টাকা অপচয় না করে তা দিয়ে অভাবগ্রস্ত গরিব দুঃখী ও বিধবাদের অভাব মোচন, পুনর্বাসন ও চিকিৎসার জন্য খরচ করা। অর্থাৎ হালাল ও প্রয়োজনীয় কাজে খরচ করা এবং পাশাপাশি খেলাধুলাসহ সর্বপ্রকার হারাম কাজগুলো বন্ধ করে দেয়া।


নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন- প্রত্যেক খেলাই হারাম। পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের নির্দেশ মুবারক অনুযায়ী সর্বপ্রকার খেলাধুলা হারাম ও নাজায়িয। তা ক্রিকেট হোক বা টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট হোক অথবা ফুটবলই হোক না কেন। অথচ ৯৮ ভাগ মুসলমান ও রাষ্ট্র দ্বীন ইসলাম উনার দেশের সরকার হারাম খেলা-ধুলার পিছনে কোটি কোটি টাকা অপচয় করছে। নাউযুবিল্লাহ! তাই সরকারের জন্য ফরয হচ্ছে- হারাম খেলা-ধুলায় টাকা অপচয় না করে তা দিয়ে অভাবগ্রস্ত গরিব দুঃখী ও বিধবাদের অভাব মোচন, পুনর্বাসন ও চিকিৎসার জন্য খরচ করা। অর্থাৎ হালাল ও প্রয়োজনীয় কাজে খরচ করা এবং পাশাপাশি খেলাধুলাসহ সর্বপ্রকার হারাম কাজগুলো বন্ধ করে দেয়া। অন্যথায় পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের খেলাফ হওয়ার কারণে পরকালে কঠিন জবাবদিহির সম্মুখীন হতে হবে।
যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আইম্মাহ, মুহইউস সুন্নাহ, কুতুবুল আলম, মুজাদ্দিদে আ’যম, ক্বইয়ূমুয যামান, জাব্বারিউল আউওয়াল, ক্বউইয়্যূল আউওয়াল, সুলত্বানুন নাছীর, হাবীবুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব, আওলাদে রসূল, মাওলানা সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের নির্দেশানুযায়ী ক্রিকেট, ফুটবলসহ সমস্ত খেলাধুলাই হারাম। আর হারাম খেলাধুলার জন্য টাকা খরচ করাও নাজায়িয-হারাম এবং অপচয় তো অবশ্যই। তাই বাংলাদেশ সরকারের জন্য ফরয হচ্ছে, হারাম খেলাধুলার জন্য হাজার হাজার কোটি টাকা অপচয় না করে এই টাকাগুলো নানাভাবে অভাবগ্রস্ত গরিব দুঃখী ও বিধবাদের অভাব মোচন, পুনর্বাসন ও চিকিৎসার জন্য খরচ করা। অর্থাৎ হালাল ও প্রয়োজনীয় কাজে খরচ করা। মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, সম্মানিত ইসলামী শরীয়ত উনার দৃষ্টিতে সর্বপ্রকার খেলাধুলাই হারাম ও কবীরা গুনাহ। এ প্রসঙ্গে পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার বিশুদ্ধ কিতাব ‘মুস্তাদারিক লিল হাকিম’ উনার মধ্যে উল্লেখ আছে- নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “সর্বপ্রকার খেলাধুলাই হারাম।” অথচ ৯৮ ভাগ মুসলমান ও রাষ্ট্রদ্বীন ইসলাম উনার দেশের সরকার প্রতিনিয়ত এসকল হারাম কাজে কোটি কোটি টাকা খরচ করছে; যা নাজায়িয ও হারাম হওয়ার কারণে কঠিন কবীরা গুনাহ হচ্ছে এবং সরকার চরম অপচয়কারী হিসেবে সাব্যস্ত হচ্ছে। নাউযুবিল্লাহ! মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, কোটি কোটি টাকা এভাবে হারাম কাজে অপব্যয় না করে- এ টাকা দিয়ে বন্যা, আইলা ও সিডরে আক্রান্তদের সাহায্য করা যেত। এ টাকা দিয়ে হাওরে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা করা উচিত ছিলো। এ টাকা দিয়ে অভাবগ্রস্ত মহিলাদেরকে নতুন কাপড় কিনে দেয়া উচিত ছিলো। এ টাকা দিয়ে গরিব-দুঃখীদের চিকিৎসা করানো উচিত ছিলো। এ টাকা দিয়ে ক্ষুধার্তদের মুখে আহার তুলে দেয়া উচিত ছিলো। এ টাকা দিয়ে আর্তপীড়িত অসহায় দরিদ্র দুঃখী বিধবাদের দুঃখ মোচন করা উচিত ছিলো। অর্থাৎ হালাল ও প্রয়োজনীয় এমন অনেক কাজ রয়েছে, যাতে অনেক টাকা খরচ করা প্রয়োজন। কিন্তু সরকার তাতে কিছুই খরচ করছে না। যেমন- মুসলমান উনাদের সবচেয়ে বড় ঈদ পবিত্র সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ শরীফ, সাইয়্যিদে ঈদে আ’যম, সাইয়্যিদে ঈদে আকবর পবিত্র ঈদে মীলাদে হাবীবী ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম, পবিত্র ঈদুল ফিতর, পবিত্র ঈদুল আদ্বহা, পবিত্র লাইলাতুল বরাত, পবিত্র লাইলাতুল ক্বদর ইত্যাদি দিবসে সরকারের তেমন কোনো বাজেট থাকে না। অথচ হারাম খেলাধুলা ও কাফির-মুশরিক তথা বিধর্মীদের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সরকার কোটি কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দ দিয়ে থাকে। নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! নাউযুবিল্লাহ! মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, এখানে একটি বিষয় খুবই ফিকিরের বিষয়, তাহলো- ইসলামবিদ্বেষী মহল প্রায়ই মুসলমান উনাদের ওয়াজিব কুরবানী নষ্ট করার জন্য পবিত্র কুরবানী না করে সেই টাকা ক্ষতিগ্রস্ত ও দুস্থদের দেয়ার জন্য পাগলের মতো প্রলাপ বকে থাকে। সেই ইসলামবিদ্বেষী মহল এখন কোথায়? এখন কেনো তারা বলে না খেলা-ধুলার পিছনে কোটি কোটি টাকা অপচয় না করে সেই টাকা ক্ষতিগ্রস্ত ও দুঃস্থদের মাঝে দান করে দাও? মুজাদ্দিদে আ’যম, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমামুল উমাম আলাইহিস সালাম তিনি বলেন, মূলকথা হলো- পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের নির্দেশ মুবারক অনুযায়ী সর্বপ্রকার খেলাধুলা হারাম ও নাজায়িয। তা ক্রিকেট হোক বা টি-টুয়েন্টি ক্রিকেট হোক অথবা ফুটবলই হোক না কেন। অথবা অন্য যে কোন প্রকার খেলাধূলাই হোক না কেন, অথচ ৯৮ ভাগ মুসলমান ও রাষ্ট্র দ্বীন ইসলাম উনার দেশের সরকার হারাম খেলা-ধুলার পিছনে কোটি কোটি টাকা অপচয় করছে। নাউযুবিল্লাহ! তাই সরকারের জন্য ফরয হচ্ছে- হারাম খেলা-ধুলায় টাকা অপচয় না করে তা দিয়ে অভাবগ্রস্ত গরিব দুঃখী ও বিধবাদের অভাব মোচন, পুনর্বাসন ও চিকিৎসার জন্য খরচ করা। অর্থাৎ হালাল ও প্রয়োজনীয় কাজে খরচ করা এবং পাশাপাশি খেলাধুলাসহ সর্বপ্রকার হারাম কাজগুলো বন্ধ করে দেয়া। অন্যথায় পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের খেলাফ হওয়ার কারণে পরকালে কঠিন জবাবদিহির সম্মুখীন হতে হবে।

http://al-ihsan.net/qwoulshareef/Default.aspx?language=BN&vt=full&init_id=6551

শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে