তাফসীরুল মুজাদ্দিদিল আ’যম আলাইহিস সালাম : মুজাদ্দিদুয্ যামান রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনাদের তালিকা


সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ করেন-
ان الله عز وجل يبعث لهذه الامة على رأس كل مائة سنة من يجددلها دينها
অর্থ: “নিশ্চয়ই আল্লাহ পাক উম্মতে হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর জন্যে প্রত্যেক হিজরী শতকের শুরুতে একজন ব্যক্তিকে (মুজাদ্দিদ উনাকে) প্রেরণ করবেন, যিনি তাদের দ্বীন তথা আক্বীদা ও আমলের তাজদীদ বা  সংস্কার করবেন।” (আবূ দাউদ শরীফ, মিশকাত শরীফ)

১ম হিজরী শতক:
হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুমগণের যামানা তথা ১ম হিজরী শতক ১০০ অথবা ১১০ হিজরী পর্যন্ত। ১ম হিজরী শতক হচ্ছে হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম উনাদের যামানা। অতএব, মুজাদ্দিদ আগমন শুরু হয়েছে ২য় হিজরী শতক থেকে।

২য় হিজরী শতক:
তাবিয়ী, আল মুজতাহিদুল মুতলাক্ব, আল ইমামুল আ’যম ২য় হিজরী শতকের আল মুজাদ্দিদুল আ’যম, আল মুজাদ্দিদুল আউয়াল, ইমামুল আইম্মাহ, হাকিমুল হাদীছ, সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম আবূ হানীফা নু’মান বিন ছাবিত ইবনে যাওত্বী কূফী রহমতুল্লাহি আলাইহি। তিনি সর্বশ্রেষ্ঠ মাযহাব হানাফী মাযহাব-এর ইমাম ও প্রতিষ্ঠাতা। বিলাদত শরীফ: ৮০ হিজরী। বিছাল শরীফ: ১৫০ হিজরীর রজব মাসে।

৩য় হিজরী শতক:
৩য় হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, আল মুজতাহিদুল মুত্বলাক, ইমামুল আইম্মাহ্, হাকীমুল হাদীছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, হযরত ইমাম আবূ আব্দুল্লাহ আহমদ ইবনে মুহম্মদ ইবনে হাম্বল ইবনে হিলাল ইবনে ইদ্রীস শাইবানী মারূযী বাগদাদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। তিনি মাযহাব চতুষ্টয়ের মধ্যে হাম্বলী মাযহাবের ইমাম ও প্রতিষ্ঠাতা। বিলাদত শরীফ: ১৬৪ হিজরী, বিছাল শরীফ: ২৪১ হিজরীর ১২ রবীউল আউয়াল শরীফ জুমুয়াবার দিনে।

৪র্থ হিজরী শতক:
৪র্থ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ ও ইমাম, মুতাকাল্লিম, মুফাস্সির, উছূলী, হানাফী মাযহাবের আক্বায়িদী ইমাম, ইমামুল হুদা, হযরত আবূ মানছূর মুহম্মদ মাতুরীদী ইবনে মাহমূদ ইবনে মাহমূদ মাতুরীদী হানাফী সমরকন্দী রহমতুল্লাহি আলাইহি। যিনি হানাফী মাযহাবের মুকাল্লিদ ও মুজতাহিদ ছিলেন। বিলাদত শরীফ: ২৭০ মতান্তরে ২৭১ হিজরী। বিছাল শরীফ: ৩৩৩ হিজরী।

৫ম হিজরী শতক:
৫ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ ও ইমাম, হুজ্জাতুল ইসলাম, হযরত ইমাম আবূ হামিদ মুহম্মদ গাযালী ইবনে মুহম্মদ ইবনে মুহম্মদ ইবনে মুহম্মদ ইবনে মুহম্মদ ইবনে মুহম্মদ গাযালী তূসী শাফিয়ী আশয়ারী রহমতুল্লাহি আলাইহি। বিলাদত শরীফ: ৪৫০ হিজরী, বিছাল শরীফ: ৫০৫ হিজরী।

৬ষ্ঠ হিজরী শতক:
৬ষ্ঠ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, ক্বাদিরিয়া ত্বরীক্বার ইমাম, মাহবূবে সুবহানী, কুতুবে রব্বানী, আল গাউছুল আযম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, মুহ্ইদ্দীন, শাহ ছূফী শায়খ সাইয়্যিদ আবূ মুহম্মদ আব্দুল ক্বাদির জীলানী ইবনে আবূ ছালিহ ইবনে আব্দুল্লাহ জীলানী হাম্বলী আশয়ারী বাগদাদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। বিলাদত শরীফ: ৪৭১ হিজরী ১লা রমাদ্বান শরীফ ছুবহি ছাদিকের সময়, বিছাল শরীফ: ৫৬১ হিজরী ১১ রবীউছ ছানী সোমবার ছূবহি ছাদিকের সময়।

৭ম হিজরী শতক:
৭ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, চীশতিয়া ত্বরীক্বার ইমাম, গরীবে নেওয়ায, হাবীবুল্লাহ, হযরত খাজা সাইয়্যিদ মুঈনুদ্দীন হাসান চীশতী আজমিরী সাঞ্জিরী হানাফী মাতুরীদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। বিলাদত শরীফ: ৫৩৬ হিজরী ১৪ই রজব ইয়াওমুল ইছনাইনিল আযীমি ছুবহি ছাদিকের সময়। বিছাল শরীফ: ৬৩৩ হিজরীর ৬ই রজব। তিনি মোট ৯৭ বছর হায়াত মুবারক পেয়েছিলেন।

৮ম হিজরী শতক:
৮ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, সুলত্বানুল মাশায়িখ, সুলত্বানুল আউলিয়া, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, লাগবী, নাহ্বী, ছরফী, মানতিক্বী, হযরত ইমাম ছূফী মুহম্মদ নিযামুদ্দীন আউলিয়া ইবনে আহমদ ইবনে আলী বুখারী বাদায়ূনী দিহলবী হানাফী মাতুরীদী চীশ্তী রহমতুল্লাহি আলাইহি। গ্রহণযোগ্য মতে; বিলাদত শরীফ: ৬৬০ হিজরী, বিছাল শরীফ: ৭৪৫ হিজরী। পৃথিবীর ইতিহাসে প্রথম শ্রেণীর মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির ও ফক্বীহগণ উনাদের মধ্যে তিনি অন্যতম একজন।

৯ম হিজরী শতক:
৯ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, নকশ্বন্দিয়া ত্বরীকার ইমাম, আরিফ বিল্লাহ, শাহ ছূফী শাইখ খাজা মুহম্মদ বাহাউদ্দীন ইবনে আহমদ যুহুরী ফারূক্বী নক্শবন্দী বুখারী হানাফী মাতুরীদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। বিলাদত শরীফ: ৭২৮ হিজরী, বিছাল শরীফ: ৮০৮ হিজরী, মতান্তরে ৭৯১ হিজরী।

১০ম হিজরী শতক:
১০ম হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, ইমাম ও মুজতাহিদ, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, মুওয়াররিখ, আদীব, মু’তাকাল্লিম, আলিম, যাহিদ, আল্লামা জালালুদ্দীন আব্দুর রহমান সুয়ূতী ইবনে আবূ বকর কামালুদ্দীন ইবনে মুহম্মদ শিহাবুদ্দীন ইবনে উছমান ইবনে মুহম্মদ ইবনে খাদ্বর ইবনে আইয়ূব ইবনে মুহম্মদ ইবনে হুমামুদ্দীন খুদ্বাইরী সুয়ূত্বী মিছরী তূলূনী শাফিয়ী আশয়ারী রহমতুল্লাহি আলাইহি। বিলাদত শরীফ: ৮৪৯ হিজরীর ১লা রজব রবিবার রাতে, বিছাল শরীফ: ৯১১ হিজরীর ১৯ জুমাদাল ঊলা জুমুয়াবার শেষ রাতে।

১১তম হিজরী শতক:
একাদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, মুজাদ্দিদিয়া ত্বরীকার ইমাম, ইমামু রব্বানী, কাইয়্যূমে যামানী, আফদ্বালুল আউলিয়া, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, মুওয়াররিখ, মুতাকাল্লিম, উছূলী, নাহবী, ছরফী, শাহ ছূফী শাইখ আহমদ হযরত মুজাদ্দিদু আলফি ছানী ইবনে আব্দুল আহাদ সিরহিন্দী ফারূক্বী নক্শবন্দী হানাফী মাতুরীদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। বিলাদত শরীফ: ৯৭১ হিজরী ১৪ শাওয়াল জুমুয়াবার তাহাজ্জুদ নামাযের ওয়াক্তে, বিছাল শরীফ: ১০৩৪ হিজরীর ২৮শে সফর সোমবার ইশরাক নামাযের সময় সিরহিন্দ শরীফ-এ।

১২তম হিজরী শতক:
দ্বাদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদ, ইমাম, মুজতাহিদ, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, উছূলী, শাহ ছূফী হযরত আল্লামা আবূ আব্দিল্লাহ শাহ ওয়ালি উল্লাহ আহমদ ইবনে আব্দুর রহীম দিহলবী উমারী হিন্দী হানাফী মাতুরীদী নক্শবন্দী মুজাদ্দিদী ক্বাদিরী চীশ্তী রহমতুল্লাহি আলাইহি। বিলাদত শরীফ: ১১১৪ হিজরীর ৪ঠা শাওওয়াল বুধবার সকালে, বিছাল শরীফ: ১১৭৬ হিজরীর ২৯শে মুর্হরম যুহরের সময়।

১৩তম হিজরী শতক:
ত্রয়োদশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদুয্ যামান, মুহম্মদিয়াহ ত্বরীকার ইমাম, আমীরুল মু’মিনীন, খলীফাতুল্ মুসলিমীন, শহীদে বালাকোট, মুহাদ্দিছ, মুফাস্সির, ফক্বীহ, মুতাকাল্লিম, ছূফী হযরত আল্লামা সাইয়্যিদ আহমদ শহীদ বেরেলবী হানাফী মাতুরীদী নক্শবন্দী মুজাদ্দিদী ক্বাদিরী চীশ্তী হিন্দী রহমতুল্লাহি আলাইহি। তিনি হযরত শাহ আব্দুল আযীয মুহাদ্দিছ দিহলবী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার প্রধান খলীফা এবং হযরত শাহ সূফী নূর মুহম্মদ নিযামপূরী রহমতুল্লাহি আলাইহি ও হযরত শাহ ছূফী কারামত আলী জৌনপূরী রহমতুল্লাহি আলাইহি উনার শাইখ বা মুর্শিদ ছিলেন। বিলাদত শরীফ: ১২০১ হিজরী, শাহাদত মুবারক: ১২৪৬ হিজরীর ২৪ যুল্ কা’দাহ।

১৪তম হিজরী শতক:
চতুর্দশ হিজরী শতকের মুজাদ্দিদুয্ যামান, ইমাম, আমীরুশ্ শরীয়াহ ওয়াত ত্বরীক্বাহ, কুতুবুল আলম, শাহ ছূফী আলহাজ্জ হযরত মাওলানা আল্লামা আব্দুল্লাহিল্ মা’রূফ মুহম্মদ আবূ বকর ছিদ্দীক্বী ফুরফুরাবী হানাফী মাতুরীদী নক্শবন্দী মুজাদ্দিদী ক্বাদিরী চীশতী মুহম্মদী রহমতুল্লাহি আলাইহি। তিনি অসংখ্য দৈনিক, পাক্ষিক, মাসিক পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা ও পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। বিলাদত শরীফ: ১২৬৩ হিজরী, বিছাল শরীফ: ১৩৫৮ হিজরী। (ফুরফুরা শরীফ-এর ইতিবৃত্ত, হযরত পীর ছাহেব ক্বিবলা উনার বিস্তারিত জীবনী লি বশীরহাটী)

১৫তম হিজরী শতক তথা বর্তমান যামানার মুজাদ্দিদ:
“মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ”, মাসিক “আল বাইয়্যিনাত শরীফ”এবং দৈনিক “আল ইহসান শরীফ” এর প্রতিষ্ঠাতা ও পৃষ্ঠপোষক- খলীফাতুল্লাহ, খলীফাতু রসূলিল্লাহ, সাইয়্যিদু উলিল আমর, মাখযানুল মা’রিফাত, খাযীনাতুর্ রহমাহ, মুঈনুল মিল্লাত, লিসানুল উম্মাহ্, তাজুল মুফাস্সিরীন, রঈসুল মুহাদ্দিছীন, ফখরুল ফুক্বাহা, হাকিমুল হাদীছ, হুজ্জাতুল ইসলাম, সাইয়্যিদুল মুজতাহিদীন, মুহ্ইস্ সুন্নাহ্, মাহিউল বিদয়াত, ছাহিবুল ইলহাম, রসূলে নোমা, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, সুলত্বানুল আরিফীন, ইমামুছ্ ছিদ্দীক্বীন, ছাহিবু সুলতানিন্ নাছীর, মুসতাজাবুদ্ দা’ওয়াত, কুতুবুল আলম, আল্ গাউছুল আ’যম, আল্ মুজাদ্দিদুল আ’যম, ক্বাইয়ূমুয্ যামান, আল্ জব্বারিউল আউয়াল, আল্ ক্ববিউল আউয়াল, ইমামুল আইম্মাহ, ইমামুশ্ শরীয়ত ওয়াত্ তরীক্বত, হাবীবুল্লাহ, জামিউল আলক্বাব, আওলাদে রসূল, মাওলানা,

সাইয়্যিদুনা হযরত ইমাম সাইয়্যিদ মুহম্মদ দিল্লুর রহমান

আল্ হাসানী ওয়াল্ হুসাইনী ওয়াল্ কুরাঈশী ওয়াল্ হানাফী ওয়াল্ মাতুরীদী ওয়াল্ ক্বাদিরী
ওয়াল্ চীশ্তী ওয়ান্ নক্শবন্দী ওয়াল্ মুজাদ্দিদী ওয়াল্ মুহম্মদী
হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম রাজারবাগ শরীফ, ঢাকা।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

২২টি মন্তব্য

  1. শুকরান আপনাকে!!! Star প্রিয়তে রাখলাম….. Rose

  2. মারহাবা
    জামিলুন জিদ্দান
    খুব সুন্দর একটি পোষ্ট দেয়ার লিখককে-
    বেশুমার মারহাবা।

  3. kolom-13 says:

    ontorer ontor theke janai ofuronto mubarookbaad.

  4. jhunuapon says:

    I am Very Happy to See The Presents Centuries Muzzadid Alaihis Salam -Mamduh Hazrat Murshid Kibla Alaihis Salam Rajarbag Sharif.

    খুব সুন্দর একটি পোষ্ট দেয়ার লিখককে-
    বেশুমার মারহাবা।

  5. খুবই উপকারী ও প্রয়োজনীয় পোষ্ট। শুকরান, জাযীলান। Rose Rose

  6. আলহামদুলিল্লাহ
    খুব ভালো লাগলো লিখককে অনেক ধন্যবাদ। Rose
    তবে পোষ্ট ট্যাগ দিলে অনেক ভালো হতো।

  7. Ahmadur Rahmanগোলামে মালিক says:

    শুকরিয়াRose

  8. jhunuapon says:

    খুব সুন্দর একটি পোষ্ট দেয়ার লিখককে-
    বেশুমার মারহাবা।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে