দেয়ালে, বিলবোর্ডে অশ্লীলতা!! মুসলমানদের চরিত্র নষ্ট করার ষড়যন্ত্র


প্রত্যক্ষভাবে দেখা যাচ্ছে যে, সারাদেশে অসংখ্য বিল বোর্ডে লক্ষ লক্ষ অশ্লীল ছবি। এতে মুসলমানদের দৃষ্টিকে বিপদগামী করার কৌশল অবলম্বন করা হচ্ছে। কোটি কোটি মুসলমানদের ঈমান আমল নষ্ট করে গুনাহের কাজে ধাবিত করার সূক্ষ্ম ষড়যন্ত্র চলছে। কিন্তু মুসলমান এ থেকে সম্পূর্ণরূপে বেখবর।
অথচ মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “হে আমার হাবীব ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম! আপনি মু’মিন পুরুষদেরকে বলুন- তারা যেন তাদের দৃষ্টিকে অবনত রাখে এবং তাদের ইজ্জত-আবরুকে হিফাযত করে। এটা তাদের জন্য পবিত্রতার কারণ। নিশ্চয়ই মহান আল্লাহ পাক তিনি তারা যা করে সে সম্পর্কে খবর রাখেন। এবং আপনি মু’মিন নারীদেরকে বলুন, তারাও যেন তাদের দৃষ্টিকে অবনত রাখে এবং তাদের ইজ্জত-আবরুকে হিফাযত করে এবং তাদের সৌন্দর্যকে প্রকাশ না করে।” (পবিত্র সূরা নূর শরীফ: পবিত্র আয়াত শরীফ ৩১-৩২)
পবিত্র হাদীছ শরীফ উনার মধ্যে নূরে মুজাসসাম হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি ইরশাদ মুবারক করেন, “প্রাণীর ছবি তৈরি করা হারাম, নাজায়িয। কেননা এটাতে মহান আল্লাহ পাক তিনি উনার সৃষ্টির অনুকরণ করা হয়।”
প্রাণীর ছবি বস্ত্রে, বিছানায়, মুদ্রায়, পাত্রে এবং প্রাচীরের গায়ে কিংবা অন্য কোনো স্থানে থাকা একই কথা অর্থাৎ হারাম।
শতকরা ৯৮ ভাগ মুসলমান অধ্যুষিত এদেশে হারাম কাজ চলতে পারে না। বর্তমান সরকারের উচিত- অবলম্বে বিলবোর্ডের ছবি মুছে ফেলা বা অপসারণ করা।

Views All Time
1
Views Today
1
শেয়ার করুন
TwitterFacebookGoogle+

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে আপনাকে অবশ্যই লগইন করতে হবে